‘সিরিয়ায় কয়েক দশক থাকার পরিকল্পনা করেছে আমেরিকা’

‘সিরিয়ায় কয়েক দশক থাকার পরিকল্পনা করেছে আমেরিকা’

সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে উগ্র সন্ত্রাসী গোষ্ঠী দায়েশের পতনের পর মার্কিন সেনাদেরকে সেখানে কয়েক দশক মোতায়েন রাখার পরিকল্পনা করেছে পেন্টাগন।

আবনা ডেস্কঃ সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে উগ্র সন্ত্রাসী গোষ্ঠী দায়েশের পতনের পর মার্কিন সেনাদেরকে সেখানে কয়েক দশক মোতায়েন রাখার পরিকল্পনা করেছে পেন্টাগন। মার্কিন সমর্থিত সিরিয়ার একটি গেরিলা গোষ্ঠী এ তথ্য দিয়েছে। তারা বলছে, সিরিয়াকে মুক্ত করার জন্য মার্কিন সেনারা দামেস্ক-বিরোধী যোদ্ধাদেরকে সমর্থন দিচ্ছে না; তাদের ভিন্ন পরিকল্পনা রয়েছে।
মার্কিন সমর্থিত সিরিয়ান ডেমোক্র্যাটিক ফোর্স বা এসডিএফ’র মুখপাত্র তালাল সিলো গতকাল (বৃহস্পতিবার) বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেন, “আমরা মনে করি দায়েশের পতনের পর এখানে মার্কিন সেনাদের কৌশলগত স্বার্থ রয়েছে।” সিলো বলেন, “সিরিয়ায় ঢোকার বিষয়ে আমেরিকার কয়েক দশক ধরে কৌশল ছিল। এখন সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলের নেতাদের সঙ্গে আমেরিকার দীর্ঘমেয়াদি সামরিক, অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক চুক্তি হবে।”
সিরিয়া ও তুরস্ক সীমান্তের ৪০০ কিলোমিটার এলাকায় কুর্দি প্রভাবিত এসডিএফ’র শক্ত অবস্থান রয়েছে। এ বিস্তীর্ণ সীমান্তের কয়েক জায়গায় মার্কিন সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। গত জুলাই মাসে কুর্দি পিপলস প্রটেকশন ইউনিট বা ওয়াইপিজি’র প্রধান জানিয়েছিলেন, সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে মার্কিন সেনারা আটটি ঘাঁটি স্থাপন করেছে এবং এর মধ্যে একটি গুরুত্বপূর্ণ বিমানঘাঁটি রয়েছে।#


আপনার মন্তব্য প্রেরণ করুন

আপনার ই-মেইল প্রকাশিত হবে না। প্রয়োজনীয় ফিল্ডসমূহ * এর মাধ্যমে চিহ্নিত করা হয়েছে

*

quds cartoon 2018
پیام امام خامنه ای به مسلمانان جهان به مناسبت حج 2016
We are All Zakzaky