ইরানের নীতি নির্ধারণী পরিষদের সদস্য,

মধ্যপ্রাচ্যে আইআরজিসি’র ভূমিকা সম্পর্কে অবগত মার্কিনীরা

  • News Code : 859146
  • Source : ABNA
Brief

ইরানের নীতি নির্ধারণী পরিষদের সদস্য ড. বেলায়েতি বলেছেন: ‘আমাদের শত্রুরা বিশেষ করে মার্কিনীরা জানে যে, ইরানের ইসলামি বিপ্লব, দেশ এবং মধ্যপ্রাচ্যে ইরানের মিত্রদের রক্ষায় আইআরজিসি’র ভূমিকা কতটা গুরুত্বপূর্ণ ও স্পর্শকাতর’।

হলে বাইত (আ.) বার্তা সংস্থা (আবনা): ড. আলী আকবার বেলায়েতি এক সম্মেলনে বক্তৃতাকালে ইরানের উপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা এবং আইআরজিসি’র বিষয়ে তাদের কিছু কিছু মন্তব্য প্রসঙ্গে বলেন, বিপ্লবের শুরু থেকে এ পর্যন্ত মার্কিনীরা ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের সাথে সম্ভাব্য সকল উপায়ে শত্রুতা পোষণ অব্যাহত রেখেছে।

আহলে বাইত (আ.) বিশ্বসংস্থার উচ্চতর পরিষদের এ সদস্য বলেন, বিপ্লবী রক্ষী বাহিনীর (আইআরজিসি) নীতিমালা অনুযায়ী ইসলামি বিপ্লব, ইরানের সীমান্ত এবং দেশের সংবিধান রক্ষার গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব তাদের কাঁধে অর্পিত।

বাস্তবে বিপ্লবী রক্ষী বাহিনী এ পর্যন্ত বিভিন্ন সময়ে সৃষ্ট সংকট থেকে অত্যন্ত বিচক্ষণতার সাথে ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানকে দূরে সরিয়ে দিয়েছে –এ কথা উল্লেখ করে ড. বেলায়েতি বলেন: আমাদের শত্রুরা বিশেষ করে মার্কিনী ও জায়নাবাদীরা ভাল করেই জানে যে, ইরানের ইসলামি বিপ্লব, ভূখণ্ড এবং মধ্যপ্রাচ্যে ইরানের মিত্রদের রক্ষায় আইআরজিসি’র ভূমিকা কতটা গুরুত্বপূর্ণ ও স্পর্শকাতর।

সিরিয়া ও ইরাকে বিপ্লবী রক্ষী বাহিনীর সহযোগিতার প্রতি ইঙ্গিত করে তিনি বলেন: এক্ষেত্রে যদি আইআরজিসি পরামর্শ ও পরিকল্পনা দিয়ে সহযোগিতা না করত তবে বর্তমান সরকারের স্থলে -যা স্বয়ং জনগণ কর্তৃক নির্বাচিত- মার্কিনীদের এজেন্ডা বাস্তবায়নকারীদের –যাদের শীর্ষে রয়েছে দায়েশ- হাতে বাগদাদ ও দামেস্কের ক্ষমতা থাকতো।

ইরানের নীতি নির্ধারণী পরিষদের সদস্য বলেন, ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরান রক্ষায় আইআরজিসির ভূমিকা অনস্বীকার্য। যেমনভাবে ইমাম খোমেনি (রহ.) বলেছেন, ‘যদি সিপাহ (আইআরজিসি) না থাকতো, তবে দেশও থাকতো না’।#


আপনার মন্তব্য প্রেরণ করুন

আপনার ই-মেইল প্রকাশিত হবে না। প্রয়োজনীয় ফিল্ডসমূহ * এর মাধ্যমে চিহ্নিত করা হয়েছে

*

Mourining of Imam Hossein
پیام امام خامنه ای به مسلمانان جهان به مناسبت حج 2016
We are All Zakzaky
telegram