পাকিস্তানে নিরাপত্তা সহযোগিতা বন্ধের ঘোষণা

পাকিস্তানে নিরাপত্তা সহযোগিতা বন্ধের ঘোষণা

জঙ্গীদের স্বর্গরাজ্য বলে টুইটে ট্রাম্পের কটাক্ষের পর এবার পাকিস্তানে মার্কিন নিরাপত্তা সহায়তা বন্ধের ঘোষণা এলো। এ নিয়ে দুই দেশের কয়েকদিনের বাক বিতণ্ডার পর স্টেট ডিপার্টমেন্টের পক্ষ থেকে সহায়তা বন্ধের বিষয় নিশ্চিত করা হয়।

আবনা ডেস্কঃ জঙ্গীদের স্বর্গরাজ্য বলে টুইটে ট্রাম্পের কটাক্ষের পর এবার পাকিস্তানে মার্কিন নিরাপত্তা সহায়তা বন্ধের ঘোষণা এলো। এ নিয়ে দুই দেশের কয়েকদিনের বাক বিতণ্ডার পর স্টেট ডিপার্টমেন্টের পক্ষ থেকে সহায়তা বন্ধের বিষয় নিশ্চিত করা হয়।
পাকিস্তানে তৎপর জঙ্গী গোষ্ঠী আফগান তালেবান এবং হাক্কানী মিশনের তৎপরতা বন্ধে দেশটির ব্যর্থতার ফলেই এমন সিদ্ধান্ত বলে জানানো হয়।
আভাস মিলেছিল এ বছরের একেবারের প্রথম দিনেই, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের একটি টুইট বার্তায়। এবার এলো আনুষ্ঠানিক ঘোষণা। নিজদেশে জঙ্গী তৎপরতা বন্ধে ব্যর্থ হওয়ায় এবার প্রায় সবধরনের মার্কিন নিরাপত্তা সহায়তা বন্ধ করা হলো।
স্টেট ডিপার্টমেন্টের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, জঙ্গি গ্রুপ হাক্কানী নেটওয়ার্ক এবং আফগান তালেবান গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে পাকিস্তানের ব্যবস্থা না নেওয়া পর্যন্ত এই নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকবে।
স্টেট ডিপার্টমেন্টের মুখপাত্র হিদার নুরেট সংবাদ মাধ্যমকে বিষয়টির ব্যাখ্যা দেন।
মিজ নুরেট বলছেন যে, " আজ নিশ্চিত করে বলতে চাই যে আমরা পাকিস্তানের জাতীয় নিরাপত্তা, দুঃখিত- নিরাপত্তা সহায়তা বন্ধ করছি।
যতদিন পর্যন্ত না দেশটির সরকার তাদের দেশে তৎপর আফগান তালেবান গোষ্ঠী ও হাক্কানী গ্রুপের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা না নেবে। তারা এই অঞ্চলটিকে অস্থিতিশীল করছে এবং মার্কিন নাগরিকদের টার্গেট করে আসছে। এ জন্যেই পাকিস্তানে যুক্তরাষ্ট্রে নিরাপত্তা সহায়তা বন্ধ রাখা হবে।"
যুক্তরাষ্ট্রের এমন সিদ্ধান্তে মিত্র হিসেবে পরিচিত পাকিস্তানের সাথে সম্পর্কের ক্ষেত্রে একটি বড় আঘাত। তবে আফগানিস্তান এবং ভারত প্রশংসা করেছে যুক্তরাষ্ট্রের এমন পদক্ষেপের। কেবল মাত্র চীন এ বিষয়ে পাকিস্তানের পক্ষে রয়েছে।
এর আগে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে প্রতারণার আশ্রয়, জঙ্গী দমনে ব্যর্থতা ও তালেবানদের আশ্রয় দেবার অভিযোগে সাহায্য বন্ধ করে দেবার হুমকি দিয়ে টুইট করেছিলেন মিস্টার ট্রাম্প।
সেখানে তিনি লিখেছিলেন যে, যুক্তরাষ্ট্র ১৫ বছর ধরে বোকার মতো পাকিস্তানে ৩৩ বিলিয়ন ডলারেরও বেশি অর্থ সাহায্য দিয়ে এসেছে। যার বিনিময়ে তারা কিছুই পায়নি।
অবশ্য এর আগেই ট্রাম্প প্রশাসন পাকিস্তানে ২৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার অর্থ সহায়তা পাঠাতে দেরী হবে বলে জানিয়েছিল।
যদিও স্টেট ডিপার্টমেন্টের বক্তব্যে মিজ নুরেট ডলারের হিসেবে ঠিক কত পরিমাণ নিরাপত্তা সহায়তা বন্ধ রাখা হচ্ছে তা নির্দিষ্ট করে বলতে পারেন নি।# বিবিসি বাংলা


আপনার মন্তব্য প্রেরণ করুন

আপনার ই-মেইল প্রকাশিত হবে না। প্রয়োজনীয় ফিল্ডসমূহ * এর মাধ্যমে চিহ্নিত করা হয়েছে

*

quds cartoon 2018
پیام امام خامنه ای به مسلمانان جهان به مناسبت حج 2016
We are All Zakzaky