ভয়াবহ সংকটে সাড়ে ৩ লাখ রোহিঙ্গা শিশু: ইউনিসেফ

ভয়াবহ সংকটে সাড়ে ৩ লাখ রোহিঙ্গা শিশু: ইউনিসেফ

জাতিসংঘের শিশু বিষয়ক সংস্থা ইউনিসেফ জানিয়েছে, বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া ছয় লাখ রোহিঙ্গার মধ্যে শিশুই রয়েছে প্রায় ৩ লাখ ৪০ হাজার।

আবনা ডেস্কঃ জাতিসংঘের শিশু বিষয়ক সংস্থা ইউনিসেফ জানিয়েছে, বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া ছয় লাখ রোহিঙ্গার মধ্যে শিশুই রয়েছে প্রায় ৩ লাখ ৪০ হাজার। এসব শিশু পর্যাপ্ত খাবার, বিশুদ্ধ পানি ও চিকিৎসা সেবার সংকটে রয়েছে। ইউনিসেফের বরাত দিয়ে শুক্রবার ব্রিটিশ গণমাধ্যম গার্ডিয়ানের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্রতি সপ্তাহে ১২ হাজার শিশু শরণার্থী শিবিরে আশ্রয় নিচ্ছে। ক্ষুধা ও সহিংসতা থেকে পালিয়ে আসা বেশিরভাগ শিশুই এখনও মানসিকভাবে বিভীষিকা কাটিয়ে উঠতে পারেনি।
গত ২৫ আগস্ট রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গাদের ওপর জাতিগত নিধন অভিযান শুরু করে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী। জীবন ও সম্ভ্রম বাঁচাতে বাংলাদেশে পালিয়ে আসে প্রায় ছয় লাখ রোহিঙ্গা।
ইউনিসেফের কর্মকর্তা সাইমন ইনগ্রাম বলেন, ‘এই সংকট স্বল্পমেয়াদী নয় এবং খুব তাড়াতাড়ি এর সমাধান হবে না। তাই এটা খুবই কঠিন যে, সীমান্ত খুলে দিয়ে যাদের আশ্রয় দেওয়া হচ্ছে তাদেরকে বাংলাদেশি শিশুদের মতো সকল সুবিধা নিশ্চিত করা।’
পার্স টুডের খবরে বলা হয়েছে, দুই সপ্তাহ রোহিঙ্গা শিবিরে থাকার পর ইনগ্রাম বলেছেন, ‘এখানে খাবারের সরবরাহ খুবই কম। প্রতি পাঁচজনে একজন শিশুর বয়স পাঁচের নিচে। তাদের পর্যাপ্ত চিকিৎসা সেবা প্রয়োজন। সেখানে ডায়রিয়া, কলেরাসহ অন্যান্য পানিবাহিত রোগের ঝুঁকি খুবই বেশি।’
ইউনিসেফ তাদের বিশুদ্ধ পানি ও টয়লেটের ব্যবস্থা করেছে এবং কলেরার টিকা দিচ্ছে বলে জানান তিনি। জাতিসংঘের আহ্বান করা ৪৩৪ মিলিয়ন ডলার সহায়তার মধ্যে ৭৬ মিলিয়ন ডলার চেয়েছে ইউনিসেফ। কিন্তু মাত্র ৭ শতাংশ পাওয়া গেছে বলে জানান এই কর্মকর্তা।


আপনার মন্তব্য প্রেরণ করুন

আপনার ই-মেইল প্রকাশিত হবে না। প্রয়োজনীয় ফিল্ডসমূহ * এর মাধ্যমে চিহ্নিত করা হয়েছে

*

پیام امام خامنه ای به مسلمانان جهان به مناسبت حج 2016
We are All Zakzaky