ইয়াসির আরাফাত ও ৭ ইরানি বিজ্ঞানী হত্যার নেপথ্যে ইসরায়েল

ইয়াসির আরাফাত ও ৭ ইরানি বিজ্ঞানী হত্যার নেপথ্যে ইসরায়েল

রাইজ অ্যান্ড কিল ফার্স্ট বইয়ে উল্লেখ করা হয়েছে, ইসরায়েল রাষ্ট্র সৃষ্টির পর গত ৭০ বছরে দেশটি ওই কৌশলগুলো ব্যবহার করে অন্তত ২ হাজার ৭০০ অভিযান চালিয়েছে। এর অনেকগুলোই ব্যর্থ হয়েছে।

আবনা ডেস্কঃ ফিলিস্তিনের নেতা ইয়াসির আরাফাতকে হত্যা করতে ইসরায়েল বিকিরণ বিষক্রিয়ার আশ্রয় নিয়েছিল। নতুন একটি বইয়ে এ তথ্য উঠে এসেছে।
ইসরায়েলের তেল আবিবে প্রকাশিত দৈনিক ইদিয়ত আহারোনত-এর গোয়েন্দাবিষয়ক প্রতিনিধি রনেন বার্গম্যান রাইজ অ্যান্ড কিল ফার্স্ট নামের ওই বই রচনা করেছেন। বইটির জন্য তিনি তাঁর দেশের গুপ্তচর সংস্থা মোসাদ, নিরাপত্তা সংস্থা শিন বেত ও সেনাসদস্যদের পিছু ছুটেছেন, তাঁদের সাক্ষাৎকার নিয়েছেন। সাক্ষাৎকার দেওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে ইসরায়েলের সাবেক প্রধানমন্ত্রী এহুদ বারাক ও এহুদ ওলমার্টও রয়েছেন।
এক হাজার সাক্ষাৎকার এবং হাজারো নথিপত্রের ওপর ভিত্তি করে রনেন রচনা করেছেন ছয় শতাধিক পৃষ্ঠার রাইজ অ্যান্ড কিল ফার্স্ট।
ইরানের সঙ্গে ছায়াযুদ্ধের অংশ হিসেবে ইসরায়েল দেশটির ছয় থেকে সাতজন পরমাণুবিজ্ঞানীকে হত্যা করেছে বলে জানানো হয়েছে বইটিতে। শুধু তা-ই নয়, শত্রুকে ঘায়েল করতে ইসরায়েলের গুপ্তচরেরা কখনো টুথপেস্টে বিষপ্রয়োগ করেছেন। আবার কখনো ড্রোন হামলা চালিয়েছেন সেনারা। মুঠোফোন বিস্ফোরণ ঘটিয়ে কিংবা দূরনিয়ন্ত্রিত ব্যবস্থায় যানবাহনের টায়ার ফুটো করেও নিজেদের এই ছায়াযুদ্ধ জয়ের চেষ্টা করেছে দেশটি। বিপক্ষের নেতাকে ঘায়েল করতে তাঁর গোপন প্রণয়ের খবরও বের করতে কার্পণ্য করেননি ইসরায়েলের গুপ্তচরেরা। রাইজ অ্যান্ড কিল ফার্স্ট বইয়ে উল্লেখ করা হয়েছে, ইসরায়েল রাষ্ট্র সৃষ্টির পর গত ৭০ বছরে দেশটি ওই কৌশলগুলো ব্যবহার করে অন্তত ২ হাজার ৭০০ অভিযান চালিয়েছে। এর অনেকগুলোই ব্যর্থ হয়েছে।
২০০৪ সালে ফিলিস্তিনের নেতা ইয়াসির আরাফাতের মৃত্য নিয়ে বিস্তারিত বর্ণনায় অপারগতা প্রকাশ করেছেন বার্গম্যান। তাঁর ভাষ্য, ইসরায়েলি সেনাবাহিনীর তৎপরতার কারণে তিনি এ বিষয়ে বিস্তারিত জানাতে পারছেন না।
রাইজ অ্যান্ড কিল ফার্স্ট বইটির শিরোনাম বেছে নেওয়া হয়েছে প্রাচীন ইহুদি সাহিত্যের প্রবাদ থেকে। প্রবাদটি হলো, ‘যদি কেউ তোমাকে হত্যা করতে আসে, তাহলে রুখে দাঁড়াও এবং তাকেই প্রথম হত্যা করো।’ বার্গম্যান বলেন, যে ব্যক্তিদের সাক্ষাৎকার তিনি নিয়েছেন, নিজেদের কাজের বৈধতার জন্য এই প্রবাদটিই আওড়েছেন তাঁরা।
বইতে জানানো হয়েছে, ২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর যুক্তরাষ্ট্রে সন্ত্রাসী হামলার পর তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশ ইসরায়েলের বহু কৌশল অবলম্বন করেন। এ ছাড়া সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামাও একই কৌশলে বহু অভিযান চালানোর নির্দেশ দিয়েছেন।#


আপনার মন্তব্য প্রেরণ করুন

আপনার ই-মেইল প্রকাশিত হবে না। প্রয়োজনীয় ফিল্ডসমূহ * এর মাধ্যমে চিহ্নিত করা হয়েছে

*

quds cartoon 2018
We are All Zakzaky