আলেপ্পোর,

রাশিদিন এলাকায় আত্মঘাতী হামলার নিন্দায় মাজমার বিবৃতি

রাশিদিন এলাকায় আত্মঘাতী হামলার নিন্দায় মাজমার বিবৃতি

শিয়া অধ্যুষিত ফুয়াহ ও কিফরিয়া শহরের বেসামরিক লোকদেরকে বহনকারী গাড়ি বহরকে লক্ষ্য করে চালানো হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়েছে আহলে বাইত (আ.) বিশ্বসংস্থা মাজমা।

আহলে বাইত (আ.) বার্তা সংস্থা –আবনা-: শিয়া অধ্যুষিত ফুয়াহ ও কিফরিয়া অঞ্চলের বাসিন্দাদেরকে নিরাপদে সরিয়ে নিতে ব্যবহৃত গাড়ি বহরের কাছে আলেপ্পোর রাশিদিন এলাকায় হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়েছে আহলে বাইত (আ.) বিশ্বসংস্থা মাজমা।

বিবৃতির মূল অংশ:

بسم الله الرحمن الرحیم

وَمَنْ يَقْتُلْ مُؤْمِنًا مُتَعَمِّدًا فَجَزَاؤُهُ جَهَنَّمُ خَالِدًا فِيهَا وَغَضِبَ اللَّهُ عَلَيْهِ وَلَعَنَهُ وَأَعَدَّ لَهُ عَذَابًا عَظِيمًا.

‘কেউ ইচ্ছাকৃতভাবে কোন মুমিনকে হত্যা করলে তার শাস্তি জাহান্নাম; সেখানে সে স্থায়ী হবে এবং আল্লাহ্ তার প্রতি অসন্তুষ্ট হবেন, তাকে লানত করবেন এবং তার জন্য প্রস্তুত রাখবেন মহাশাস্তি(নিসা: ৯৩)

আহলে বাইত (আ.) বিশ্বসংস্থা (মাজমা), ফুয়াহ ও কিফরিয়া অঞ্চলের বেসামরিক লোকদেরকে নিরাপদে সরিয়ে নিতে ব্যবহৃত গাড়ি বহরের মাঝে নৃশংস সন্ত্রাসী হামলার –যাতে শত শত ব্যক্তি হতাহত হয়েছে- তীব্র নিন্দা জানায়।

আহলে বাইত (আ.) বিশ্বসংস্থা এ বিষয়ের প্রতি গুরুত্বারোপ করে যে, বেসামরিক নারী, শিশু ও বৃদ্ধদের উপর হামলা ক্ষমার অযোগ্য অপরাধ এবং এগুলো ভীতু ও অত্যাচারী লোকদের কাজ। মূল্যবোধসমূহ ও মানবতার শত্রুরা এ ধরনের ন্যাক্কারজনক হামলা থেকে বিরত থাকে না। তারা এগুলোকে ইসলাম ধর্মের সাথে সম্পৃক্ত করে, অথচ ধর্ম এগুলো থেকে দূরে।

বিদ্বেষী তাকফিরি দলগুলো সরাসরি হত্যা অথবা আত্মঘাতী হামলার মাধ্যমে যে সকল সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালায় এর মূলে রয়েছে, অশুভ চিন্তার অধিকারী কিছু কিছু আলেমের পক্ষ থেকে সাম্প্রদায়িক উস্কানী।

অতএব, আহলে বাইত (আ.) বিশ্বসংস্থা এ বিষয়ে সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ করছে যে, তাকফিরিদের অপরাধকর্মের ফলে সবচেয়ে বেশী লাভবান হচ্ছে অত্যাচারী জায়নবাদীরা ও বিশ্ব সাম্রাজ্যবাদ; যা আরব দেশগুলোর উপর প্রভাব বিস্তার করেছে এবং ফেতনা ও যুদ্ধের সূচনা করে ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলনের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে।

প্রতিরোধ আন্দোলনের অক্ষে আঘাত এবং এ সরকার অপসারণের বারবার চেষ্টা করা হয়েছে। জায়নবাদীদের মোকাবিলার পদ্ধতি ও পথে যেন পরিবর্তন সাধিত হয় সে লক্ষ্যে তারা সাম্প্রদায়িক ফেতনা সৃষ্টি করছে। আবার সন্ত্রাসী এ সকল দলকে সহায়তা প্রদানকারী যুক্তরাষ্ট্র, তুরস্ক, সৌদি আরব ও কাতারসহ অন্যান্য দেশ এ সকল দলকে মধ্যপন্থী বলে প্রমাণের চেষ্টা চালায়।

যদি এ সকল দেশ তাকফিরি দলগুলোকে সহযোগিতা করা থেকে হাত গুটিয়ে নেয়, তবে তাকফিরি সন্ত্রাসীরা তাদের অপরাধকর্ম অব্যাহত রাখতে সক্ষম নয়।

স্বাধীন ইসলামি দেশ, জাতিসংঘ, সিরিয়া সরকার এবং জাগ্রত বিবেকের অধিকারী ব্যক্তিদের কাছে আমাদের দাবী হল, তারা যেন এ সকল অপরাধকর্মের বিপরীতে শুধু নিন্দা জানিয়ে ক্ষান্ত না হন। বরং বেসামরিক মানুষগুলোকে রক্ষার্থে সম্ভাব্য সকল পদক্ষেপ গ্রহণ করেন এবং সন্ত্রাসীদের প্রতিহত করার লক্ষ্যে কার্যকর পদ্ধতি অবলম্বন করেন।

নিঃসন্দেহে এ সকল অপরাধকর্ম ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড যুদ্ধাপরাধের অন্তর্ভুক্ত। কেননা এ হত্যাযজ্ঞ প্রজন্ম ধ্বংসের উদ্দেশ্যে চালানো হচ্ছে। আহলে বাইত (আ.) বিশ্বসংস্থা, আলেপ্পোর রাশিদিন এলাকায় সন্ত্রাসী হামলায় ক্ষতিগ্রস্থদের পরিবার, সিরিয় সরকার ও সিরিয়ার জনগণের প্রতি শোক ও সমবেদনা জ্ঞাপন করছে। পাশাপাশি মহান আল্লাহর কাছে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের জন্য ধৈর্য এবং আহতদের দ্রুত সুস্থ্যতা কামনা করে।

আহলে বাইত (আ.) বিশ্বসংস্থা

১৯ রজব ১৪৩৮; ১৬ই এপ্রিল ২০১৭


আপনার মন্তব্য প্রেরণ করুন

আপনার ই-মেইল প্রকাশিত হবে না। প্রয়োজনীয় ফিল্ডসমূহ * এর মাধ্যমে চিহ্নিত করা হয়েছে

*

Pesan Haji 2018 Ayatullah Al-Udzma Sayid Ali Khamenei
We are All Zakzaky