কূটনৈতিক তথ্য ফাঁস

সৌদি আরবে ভাঙন সৃষ্টির প্রচেষ্টা আমিরাতের

সৌদি আরবে ভাঙন সৃষ্টির প্রচেষ্টা আমিরাতের

বিভিন্ন সময়ে সৌদি আরবের নেয়া নীতিতে সন্তুষ্ট হতে পারেনি আরব আমিরাত। এজন্য সৌদি আরবে ভাঙন সৃষ্টির প্রচেষ্টা চালিয়েছেন আবুধাবির ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন জায়েদ।

আবনা ডেস্কঃ সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের মধ্যে সম্পর্ক সবসময়ই বন্ধুসুলভ। বিভিন্ন সময়ে দেশ দুটি একে অন্যের পাশে দাঁড়িয়েছে। কিন্তু লেবাননের পত্রিকা আল আখবারে ফাঁস হওয়া কয়েকটি কূটনৈতিক বার্তা ভিন্ন কথা বলছে। এসব দলিলে দেখা যায়, বিভিন্ন সময়ে সৌদি আরবের নেয়া নীতিতে সন্তুষ্ট হতে পারেনি আরব আমিরাত। এজন্য সৌদি আরবে ভাঙন সৃষ্টির প্রচেষ্টা চালিয়েছেন আবুধাবির ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন জায়েদ। এ খবর দিয়েছে আল জাজিরা।
খবরে বলা হয়, বৈরুতে নিযুক্ত আমিরাত ও জর্ডানের রাষ্ট্রদূতের কয়েকটি গোপন কূটনৈতিক বার্তা ফাঁস করে লেবাননের আল আখবার পত্রিকা। এসব বার্তা নিজেদের সরকারের কাছে পাঠিয়েছিলেন ওই দুই রাষ্ট্রদূত। গত বছরের ২০শে সেপ্টেম্বর লেবাননে নিযুক্ত জর্ডানের রাষ্ট্রদূত নাবিল মাসারওয়া নিজ দেশে একটি বার্তা পাঠান। এতে লেবাননের কুয়েতি রাষ্ট্রদূত আব্দেল আল কেনায়ির সঙ্গে তার বৈঠকের কথা উল্লেখ করা হয়। বৈঠকে আল কেনায়ি তাকে বলেন, আবুধাবির ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মেদ বিন জায়েদ সৌদি আরবে ভাঙন সৃষ্টির চেষ্টা করছেন। ২৮শে সেপ্টেম্বর জর্ডানে প্রেরিত আরেকটি বার্তায় জর্ডানের রাষ্ট্রদূত লেবাননে নিযুক্ত আমিরাতের রাষ্ট্রদূত হামাদ বিন সাইদ আল শামসির সঙ্গে তার বৈঠকের কথা উল্লেখ করেন। বৈঠকে আমিরাতের রাষ্ট্রদূত বলেছেন, তার দেশ মনে করে যে, সৌদি আরবের নীতিমালা দেশে ও দেশের বাইরে ব্যর্থ হচ্ছে। বিশেষ করে লেবাননের বিষয়ে সৌদি কৌশল পুরোপুরি ব্যর্থ হয়েছে। সৌদি নীতিমালায় অসন্তুষ্ট আমিরাত। ফাঁস হওয়া আরেকটি বার্তায় আমিরাতের রাষ্ট্রদূত তার দেশকে জানিয়েছেন, ইউনেস্কোর প্রধান নির্বাচিত হওয়ার ক্ষেত্রে কাতারের প্রার্থী হামাদ বিন আব্দুল আজিজ আল কাওয়ারিকে ভোট দিয়েছে লেবানন। প্রধানমন্ত্রী হারিরিও কাতারকে সমর্থন দেয়ার বিষয়টি জানতেন।
গত বছরের ১৮ই অক্টোবর এসব তথ্য নিজের দেশে পাঠিয়েছেন বৈরুতে নিযুক্ত আমিরাতের রাষ্ট্রদূত হামাদ বিন সাইদ আল শামসি।
উল্লেখ্য, গত বছরের নভেম্বরে সৌদি আরবে অকস্মাৎ পদত্যাগের ঘোষণা দেন লেবাননের প্রধানমন্ত্রী সাদ আল হারিরি। পদত্যাগের জন্য ইরান ও ইরানের মদতপুষ্ট লেবাননের সশস্ত্র সংগঠন হিজবুল্লাহকে দায়ী করেন। তাকে হত্যা করার চেষ্টা করা হচ্ছে বলেও জানান তিনি। তবে লেবাননের কর্মকর্তারা দাবি করেন, হারিরিকে বন্দি করে রেখেছিল সৌদি আরব।#


আপনার মন্তব্য প্রেরণ করুন

আপনার ই-মেইল প্রকাশিত হবে না। প্রয়োজনীয় ফিল্ডসমূহ * এর মাধ্যমে চিহ্নিত করা হয়েছে

*

Arba'een
Mourining of Imam Hossein
Pesan Haji 2018 Ayatullah Al-Udzma Sayid Ali Khamenei
We are All Zakzaky