পোষ মানেনি উত্তর কোরিয়া

পোষ মানেনি উত্তর কোরিয়া

আলোচনা সত্ত্বেও উত্তর কোরিয়া পারমাণবিক জ্বালানি তৈরি করছে, অভিযোগ মার্কিন গোয়েন্দা বিভাগের।

আবনা ডেস্কঃ মার্কিন গোয়েন্দা বিভাগের ধারণা, আলোচনা সত্ত্বেও উত্তর কোরিয়া পারমাণবিক জ্বালানি তৈরি অব্যাহত রেখেছে এবং একাধিক গোপন স্থাপনায় সম্প্রতি উৎপাদন বাড়িয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের কয়েকজন কর্মকর্তার বরাতে মার্কিন সংবাদ নেটওয়ার্ক এনবিসি তাদের প্রতিবেদনে বলেছে, যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সাম্প্রতিক আলোচনার সময় এসব তথ্য লুকিয়েছিল উত্তর কোরিয়া।
গতাকল শুক্রবার এক প্রতিবেদনে এনবিসি জানায়, মার্কিন গোয়েন্দাদের সাম্প্রতিক এ তথ্য মার্কিন প্রেসিডেন্টের কথার সঙ্গে মেলে না। ১২ জুন উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উনের সঙ্গে বৈঠকের পর এক টুইটের ট্রাম্প বলেছিলেন, উত্তর কোরিয়ার কাছ থেকে আর কোনো পারমাণবিক হুমকি নেই।
নাম প্রকাশ না করে এনবিসিকে পাঁচজন কর্মকর্তা বলেছেন, সাম্প্রতিক মাসগুলোয় পারমাণবিক অস্ত্র তৈরির জন্য উত্তর কোরিয়া ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধ করার কাজ শুরু করে। এমনকি যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে কূটনৈতিক আলোচনা চালানোর সময়েও পারমাণবিক জ্বালানি তৈরির কাজ বন্ধ রাখেনি।
গোয়েন্দা সংস্থার মূল্যায়নে উঠে এসেছে, ইয়ংবিয়নের পরিচিত জ্বালানি উৎপাদন স্থাপনাটি ছাড়াও উত্তর কোরিয়ার একাধিক গোপন পারমাণবিক স্থাপনা আছে।
এক কর্মকর্তা বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে তারা প্রতারণা করছে—এমন সুস্পষ্ট প্রমাণ আছে।
অবশ্য এনবিসির ওই প্রতিবেদনের বিষয়ে মার্কিন গোয়েন্দা বিভাগের পক্ষ থেকে কোনো মন্তব্য করা হয়নি। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলছে, তারা বিষয়টি নিশ্চিত নয়। এ ছাড়া গোয়েন্দাবিষয়ক খবরে তারা মন্তব্য করবে না। এ বিষয়ে হোয়াইট হাউসের পক্ষ থেকেও কিছু জানানো হয়নি।
সম্মেলনের ফল নিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের উৎসাহব্যঞ্জক কথাবার্তার পরও এনবিসির ওই প্রতিবেদনে পারমাণবিক কর্মসূচি ছেড়ে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনায় উত্তর কোরিয়ার প্রস্তুতি নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়েছে। জ্যেষ্ঠ এক গোয়েন্দা কর্মকর্তা বলেছেন, ‘সম্মেলনের আগে পারমাণবিক কর্মসূচি ও ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা স্থগিত করা অপ্রত্যাশিত ছিল। দুই পক্ষের কথাবার্তা অবশ্য ইতিবাচক পদক্ষেপ। তবে বিভিন্ন স্থাপনা, অস্ত্র সংখ্যা ও ক্ষেপণাস্ত্র সংখ্যা নিয়ে আমাদের প্রতারিত করা হচ্ছে। আমরা বিষয়টি গভীরভাবে দেখছি।’
কোরিয়া উপদ্বীপকে পারমাণবিক অস্ত্রমুক্ত করার প্রত্যয়ে উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে বৈঠকে বসেন ট্রাম্প। বৈঠকে দুজন একটি যৌথ বিবৃতিতে সই করেন। তবে তাতে কবে নাগাদ উত্তর কোরিয়া পারমাণবিক কর্মসূচি থেকে বের হয়ে আসবে, তা উল্লেখ নেই।
গত সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও বলেন, বৈঠকে উত্তর কোরিয়ার দেওয়া প্রতিশ্রুতিগুলোর বাস্তবায়ন করার প্রচেষ্টায় উত্তর কোরিয়া সফর করবেন।
গত সপ্তাহে ট্রাম্প জানান, উত্তর কোরিয়া তাদের বড় চারটি পরীক্ষা কেন্দ্র উড়িয়ে দিয়েছে। এর মধ্য দিয়ে পুরোপুরি পারমাণবিক কর্মসূচি বন্ধ করার প্রক্রিয়া শুরু হলো। তবে বৈঠকরে পর থেকে এ ধরনের কোনো প্রমাণ দেখেননি বলে জানান কর্মকর্তারা।


আপনার মন্তব্য প্রেরণ করুন

আপনার ই-মেইল প্রকাশিত হবে না। প্রয়োজনীয় ফিল্ডসমূহ * এর মাধ্যমে চিহ্নিত করা হয়েছে

*

Pesan Haji 2018 Ayatullah Al-Udzma Sayid Ali Khamenei
We are All Zakzaky