সিউলের কাছে ১০০ কোটি ডলার চাইলেন ট্রাম্প

সিউলের কাছে ১০০ কোটি ডলার চাইলেন ট্রাম্প

উত্তর কোরিয়ার ক্রমবর্ধমান হুমকির মুখে মিত্র দেশ দক্ষিণ কোরিয়ার নিরাপত্তায় ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা (থাড) মোতায়েন করছে যুক্তরাষ্ট্র।

আবনা ডেস্ক: উত্তর কোরিয়ার ক্রমবর্ধমান হুমকির মুখে মিত্র দেশ দক্ষিণ কোরিয়ার নিরাপত্তায় ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা (থাড) মোতায়েন করছে যুক্তরাষ্ট্র। তবে এ জন্য খরচবাবদ পুরো ১০০ কোটি ডলার চাইলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তার দাবি, এ ব্যয়ভার দক্ষিণ কোরিয়াকেই বহন করতে হবে।
বৃহস্পতিবার রয়টার্সকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে ট্রাম্প বলেন, ‘আমি দক্ষিণ কোরিয়ার সরকারকে বলেছি, ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা (থাড) মোতায়েনের পুরো খরচ তাদেরই দেয়া উচিত। এর খরচ প্রায় ১০০ কোটি ডলার। এটার কার্যক্ষমতা অসাধারণ। আকাশে থাকা অবস্থায় শত্রুর ক্ষেপণাস্ত্র ধ্বংস করতে সক্ষম।’
তবে ট্রাম্পের এ দাবি মানতে নারাজ দক্ষিণ কোরিয়া। দেশটির পরবর্তী নির্বাচনে জনমত জরিপে এগিয়ে থাকা প্রার্থী মুন জায়ে-ইনের মুখপাত্র বলেন, ‘প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের এ দাবি রক্ষা করা অসম্ভব। কেননা থাডের স্থাপন থেকে শুরু করে রক্ষণাবেক্ষণ সবই দেখছে মার্কিন বাহিনী। এতে দক্ষিণ কোরিয়ার সেনাদের কোনো ভূমিকা নেই।’
গত বুধবার দক্ষিণ কোরিয়া ক্ষেপণাস্ত্র বিধ্বংসী ‘দ্য টার্মিনাল হাই-আলটিচুড এরিয়া ডিফেন্স’ (থাড) স্থাপনের কাজ শুরুর বিষয়ে ঘোষণা দেয়। উত্তর কোরিয়ার হুমকির মুখে নির্ধারিত সময়ের বেশ আগেই এ কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের এই থাড স্থাপনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়েছেন দক্ষিণ কোরিয়ার নাগরিকরা। নিন্দা জানিয়েছেন মুন জায়ে-ইনও। পরবর্তী প্রশাসন দায়িত্ব গ্রহণ না করা পর্যন্ত এ কার্যক্রম স্থগিতের দাবি জানান তিনি। উদ্বেগ জানিয়েছে চীনও।
উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়ার কূটনৈতিক উত্তেজনার মধ্যেই এ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা মোতায়েনের উদ্যোগ নেয়া হয়। কোরীয় উপদ্বীপ এলাকায় বিমানবাহী রণতরী ও পারমাণু অস্ত্রবাহী সাবমেরিনও মোতায়েন করেছে ওয়াশিংটন।
সাক্ষাৎকারে আরেক মিত্র সৌদি আরবের বিরুদ্ধেও অভিযোগ করেছেন ট্রাম্প। তিনি বলেন, মার্কিন প্রতিরক্ষার বিনিময়ে ঠিকভাবে অর্থ দিচ্ছে না সৌদি আরব। দেশটির প্রতিরক্ষায় বিশাল অঙ্কের অর্থ খরচ হয়ে যাচ্ছে ওয়াশিংটনের। এর আগে নির্বাচনী প্রচারণায়ও সৌদির বিরুদ্ধে ট্রাম্প অভিযোগ করে বলেছিলেন, ‘সৌদির সঙ্গে কেউই ঝামেলা করতে যাচ্ছে না। কারণ আমরা তাদের পাহারা দিচ্ছি। কিন্তু তারা আমাদের যথাযথ অর্থটা দিচ্ছে না।’
এদিকে অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী ম্যালকম টার্নবুল হুশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, প্রতিবেশী দেশগুলোর ওপর পরমাণু অস্ত্র হামলা চালাতে পারে উত্তর কোরিয়া। তিনি আরও বলেন, দেশটির সরকারের ওপর পর্যাপ্ত চাপ দিচ্ছে না চীন। শুক্রবার থ্রিএডব্লিউ রেডিওকে এক সাক্ষাৎকারে তিনি এ কথা বলেন।


আপনার মন্তব্য প্রেরণ করুন

আপনার ই-মেইল প্রকাশিত হবে না। প্রয়োজনীয় ফিল্ডসমূহ * এর মাধ্যমে চিহ্নিত করা হয়েছে

*

quds cartoon 2018
We are All Zakzaky