তুরস্ক হয়ে সিরিয়া যেতে চেয়েছিলেন মোমেনা

তুরস্ক হয়ে সিরিয়া যেতে চেয়েছিলেন মোমেনা

গত শুক্রবার অস্ট্রেলিয়ায় এক ব্যক্তিকে ছুরিকাঘাত করে গ্রেপ্তার হন মোমেনা। মোমেনাদের মিরপুরের বাসায় গেলে তাঁর ছোট বোন এক পুলিশ কর্মকর্তার ওপর হামলা করেন।

আবনা ডেস্কঃ জঙ্গিবাদে উদ্বুদ্ধ হয়ে ২০১৫ সালেই তুরস্ক হয়ে সিরিয়া যেতে চেয়েছিলেন মোমেনা সোমা। তুরস্কের একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে তিনি ভর্তিও হয়েছিলেন। কিন্তু ভিসা না পাওয়ায় সে যাত্রায় তাঁর আর তুরস্ক যাওয়া হয়নি।
পুলিশের ওপর হামলা করায় গ্রেপ্তার হওয়া মোমেনা সোমার ছোট বোন আসমাউল হোসনাকে জিজ্ঞাসাবাদে এসব তথ্য পেয়েছেন তদন্তকারী কর্মকর্তারা। এ ছাড়া জঙ্গিবাদে উদ্বুদ্ধ হয়ে সিরিয়ায়
গিয়ে ফিরে আসা গাজী কামরুস সালাম এবং সিরিয়ার গিয়ে নিরুদ্দেশ হওয়া মেরিন ইঞ্জিনিয়ার নজিবুল্লাহ আনসারীর সঙ্গেও মোমেনা সোমার যোগাযোগ ছিল বলে জানা গেছে।
গত শুক্রবার অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্নে এক ব্যক্তিকে ছুরিকাঘাত করার অভিযোগে গ্রেপ্তার হন বাংলাদেশি শিক্ষার্থী মোমেনা সোমা। জিজ্ঞাসাবাদ করতে সোমবার রাতে পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের কর্মকর্তারা মোমেনাদের মিরপুরের বাসায় গেলে তাঁর ছোট বোনও এক পুলিশ কর্মকর্তার ওপর হামলা করেন।
কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলাম গতকাল বৃহস্পতিবার ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে সংবাদকর্মীদের সঙ্গে আলাপকালে বলেছেন, দুই বোনই অনলাইনের মাধ্যমে জঙ্গিবাদে জড়িয়ে পড়েন। দেশের কোনো জঙ্গি সংগঠনের সঙ্গে তাঁদের সংশ্লিষ্টতা এখন পর্যন্ত পাওয়া যায়নি। অস্ট্রেলিয়ায় গিয়ে এ ধরনের ঘটনা ঘটানোর কথা আগেই বোনকে বলে গিয়েছিলেন মোমেনা। বাসায় পুলিশ এলে তাঁদের ওপর হামলা করার নির্দেশ ছোট বোনকে তিনিই দেন।
পুলিশের এই কর্মকর্তা বলেন, জঙ্গিবাদে জড়িয়ে সিরিয়ায় চলে যাওয়া নজিবুল্লাহ আনসারীর সঙ্গে মোমেনা সোমার সম্পর্ক ছিল। ২০১৪ সালের শেষ দিকে তাঁদের বিয়ে হওয়ারও কথা ছিল। কিন্তু নজিবুল্লাহর পরিবার সেটা না চাওয়ায় বিয়েটা হয়নি।


আপনার মন্তব্য প্রেরণ করুন

আপনার ই-মেইল প্রকাশিত হবে না। প্রয়োজনীয় ফিল্ডসমূহ * এর মাধ্যমে চিহ্নিত করা হয়েছে

*

پیام امام خامنه ای به مسلمانان جهان به مناسبت حج 2016
We are All Zakzaky
telegram