শিয়াদের প্রতি অবমাননা করলেন মিশরীয় পার্লামেন্টের সালাফী সাংসদ

  • News Code : 308691
  • Source : আবনা
মিশরের সালাফী’রা পূনরায় শিয়াদের উপর এবং এদেশের সংখ্যালঘুদের বিরুদ্ধে নিজেদের শত্রুতা ও উগ্রতাপূর্ণ মন্তব্যের প্রকাশ ঘটিয়েছেন।

আহলে বাইত (আ.) বার্তা সংস্থা আবনার রিপোর্ট : মিশর সংসদের সালাফী প্রতিনিধি ‘মামদুহ ইসমাঈল’, এদেশের ‘আল-নাহ্‌র’ চ্যানেলের ‘শেষ দিবস’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে ধৃষ্টতাপূর্ণ ও অবমাননাকর এক মন্তব্যে শিয়াদেরকে মাযহাবহীন ও আকিদাহীন বলে আখ্যায়িত করে দাবী করেছেন যে, ‘যদিও আল-আযহার শিয়াদের মুসলিম ও মু’মিন বলে জানে, কিন্তু প্রকৃত অর্থে শিয়ারা বিভ্রান্ত ফের্কাহ’র অনুসারী এবং শিয়াদের কর্মকাণ্ডও ইসলামি নয়”!

ইসলামি শরিয়তের সাথে মিশরের সংবিধানের সামঞ্জস্যতার কথা উল্লেখ করে বলেন : ইসলামি শরিয়তের সাথে সামঞ্জস্যতা রাখার ক্ষেত্রে ইরান যে আদর্শের অনুসরণ করেছে আমরা তার সন্ধানে নই।

সালাফী এ সাংসদের শিয়া বিরোধী এহেন অবমাননাকর মন্তব্যে এদেশের শিয়া নেতারা ক্ষুব্ধ হয়েছেন।

মিশরের ‘মাজলিসে আ’লায়ে আলুল বাইত (আ.) পরিষদে’র সভাপতি সালাফী প্রতিনিধি’র অবমাননাকর মন্তব্যের প্রতিবাদে বলেছেন : এ বিষয়ে নিশ্চিত ছিলাম যে, তিনি এমন ধরণের ধৃষ্টতাপূর্ণ আচরণ করবেন; কেননা যা কিছুতে সালাফীরা বিখ্যাত তা হচ্ছে, উগ্রতা এবং ধর্ম সম্পর্কে তাদের মূর্খতাপূর্ণ চিন্তাধারা।

তিনি বলেন : ‘মামদুহ ইসমাইল’ ও তার মত অন্যান্যরা, তাকফিরী (অন্যদেরকে কাফের আখ্যায়িতকারী) চিন্তাধারা’র অধিকারীদের নিকট হতে আর্থিক সহযোগিতা লাভের আশায় শিয়াদের বিরুদ্ধে এ ধরণের মন্তব্য করে থাকে।

এরই ধারবাহিকতায় মিশরের শিয়া নেতা ও আহলে বাইত (আ.) বিশ্ব সংস্থার সাধারণ পরিষদের সদস্য ‘সাইয়্যেদ তাহের আল-হাশেমী’ বলেছেন : সালাফী এ প্রতিনিধি’র মূর্খতাপূর্ণ মন্তব্যের মত বিষয়াদি সম্পর্কে আমরা পূর্বে ইশারা করেছি এবং কোনরূপ অস্পষ্টতা ছাড়াই নতুন সংবিধান লেখার প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কেও বলেছি, যার ভিত্তিতে সকল আসমানী ধর্ম ও মাযহাবকে সম্মানের চোখে দেখা হবে।

সাইয়্যেদ তাহের আল-হাশেমী, মিশরে শিয়াদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকার কথা উল্লেখ করে বলেন : মিশরে নতুন সংবিধান লেখার ক্ষেত্রে সকল মাযহাব হতে উপকৃত হতে হবে।#

کنگره جریان‏های تکفیری