আল্লামা জাফারির সাথে ফোনে কথা বললেন মাজমা’র মহাসচিব

  • News Code : 759367
  • Source : ABNA
Brief

পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদে অনশনরত মাজলিসে ওয়াহদাতে মুসলিমীনের (এম ডব্লিউ এম) প্রধান ‘হুজ্জাতুল ইসলাম ওয়াল মুসলিমীন রাজা নাসের আব্বাস জাফারির সাথে টেলিফোনে আলাপ করেছেন মাজমা’র মহাসচিব।

হলে বাইত (আ.) বার্তা সংস্থা –আবনা-: পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদে অনশনরত মাজলিসে ওয়াহদাতে মুসলিমীনের (এম ডব্লিউ এম) প্রধান ‘হুজ্জাতুল ইসলাম ওয়াল মুসলিমীন রাজা নাসের আব্বাস জাফারির সাথে টেলিফোনে কথা বলেছেন আহলে বাইত (আ.) বিশ্বসংস্থার (মাজমা) মহাসচিব হুজ্জাতুল ইসলাম ওয়াল মুসলিমীন আখতারি।

আল্লামা জাফারিসহ পাকিস্তানি আলেমদের একটি দল দেশের রাজধানী ইসলামাবাদ প্রেসক্লাবের সামনে এ অনশন কর্মসূচী পালন করছেন দীর্ঘ ২৮ দিন ধরে।

হুজ্জাতুল ইসলাম আখতারি টেলিফোনে এম ডব্লিউ এম’র প্রধানের শারীরীক অবস্থার খোঁজ খবর নেন এবং পাকিস্তানের আপামর শিয়া জনতার স্বার্থে এ আত্মত্যাগের জন্য আল্লামা জাফারির প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান তিনি।

এ সময় অনশনরত ব্যক্তিদের বৈধ দাবী পূরণের জন্য পাক সরকারের প্রতি আহবান জানিয়ে জনাব আখতারি বলেন: এদেশের সরকারের উচিত যারা বহুবছর যাবত শিয়া মুসলমানদের জীবনকে অতিষ্ট করে তুলেছে তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা।

তিনি মাজলিসে ওয়াহদাতে মুসলিমীনের প্রধানের এ পদক্ষেপের সাথে একাত্মতা ঘোষণা করেন।

আল্লামা রাজা নাসের আব্বাস জাফারি ফোনালাপে তাদের অনশনের উদ্দেশ্য বর্ণনা করেন।

পাকিস্তানি শিয়া মুসলমানদের জান ও মালের উপর হামলার প্রতি ইঙ্গিত করে এম ডব্লিউ এমে’র প্রধান বলেন: এ সকল পদক্ষেপের বিপরীতে সরকার যথাযথ পদক্ষেপ নেয়নি। তাই আমাদের বৈধ দাবী পূরণ না হওয়া পর্যন্ত আমরা এ অনশন অব্যাহত রাখবো। বিভিন্ন ভাষায় এ অনশনের সংবাদ প্রচারের জন্য বার্তা সংস্থা আবনা’কে ধন্যবাদ জানাতে ভোলেননি তিনি।

ফোনালাপ শেষে হুজ্জাতুল ইসলাম আখতারি অনশনরত ব্যক্তিদের সুস্থ্যতা কামনা করে মহান আল্লাহর দরবারে দোয়া করেন।

এদিকে, গতকাল (বৃহস্পতিবার, ৯ জুন) এম ডব্লিউ এমে’র আন্তর্জাতিক বিভাগের প্রধান ‘ড. শাফাকাত হুসাইন শিরাজি’র সাথেও কথা বলেছেন মাজমা’র মহাসচিব। এ ফোনালাপে তারা পাকিস্তানে আহলে বাইত (আ.) এর অনুসারীদের অবস্থার বিষয়ে মতবিনিময় করেন। এ সময় ড. শাফাকাত হোসেন অনশনরত ব্যক্তিদের শারীরিক অবস্থার বিবরণ দেন।

উল্লেখ্য, গত ১৩ই মে (শুক্রবার) ২০১৬ থেকে এম ডব্লিউ এমে’র প্রধান ‘হুজ্জাতুল ইসলাম ওয়াল মুসলিমীন আল্লামা রাজা নাসের আব্বাস জাফারি’ পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদে এ অনশন শুরু করেছেন। পাকিস্তানে আহলে বাইত (আ.) এর অনুসারীদের উপর অত্যাচার ও সহিংসতার প্রতিবাদে দীর্ঘ ২৮ দিন যাবত এ অনশন কর্মসূচী পালিত হচ্ছে। তার শারীরিক অবস্থা অবনতির কারণে তাকে হাসপাতালেও ভর্তি করা হয়েছিল, কিন্তু তারপরও তিনি তার অনশন ভঙ্গ করেননি। ইতিমধ্যে তার অনুকরণে পাকিস্তানের বিভিন্ন এলাকাতেও অনশন শুরু করেছে আহলে বাইত (আ.) এর অনুসারীরা।

আল্লামা জাফারি ও তার সাথীরা পাকিস্তানের কেন্দ্রীয় ও রাজ্য সরকারের নিকট নিম্নের ৭ দফা দাবী নিয়ে এ অনশন কর্মসূচী পালন করছেন:

১। দেশের বিভিন্ন স্থানে শিয়া হত্যা বন্ধে কার্যকর প্রদক্ষেপ গ্রহণ।

২। শিকারপুর ও জ্যাকব আবাদসহ শিয়া হত্যার সকল মামলা সামরিক আদালতে হস্তান্তর।

৩। পাঞ্জাব রাজ্যের শিয়াদের আযাদারি’র উপর সীমাবদ্ধতা প্রত্যাহার।

৪। তাকফিরি দলসমূহের তৎপরতা নিষিদ্ধ ঘোষণা।

৫। সম্প্রতি খায়বার পাখতুন খোয়াঅঞ্চলের শিয়াদের উপর পরিচালিত হত্যাকাণ্ডের সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার।

৬। সামরিক বাহিনী’র হাতে সম্প্রতি পারাচিনারের শিয়া মুসলিম হত্যার বিষয়ে তদন্ত কমিটি গঠন।

৭। সরকার কর্তৃক গিলগিত ও বালতিস্তানের শিয়াদের সম্পত্তি দখল বন্ধ এবং দখলকৃত সকল জমি ফেরত দিতে হবে।

এদিকে, অনশনরত ব্যক্তিরা ঘোষণা দিয়েছেন যে, ৭ দফা দাবী পূরণ না হওয়া পর্যন্ত তারা অনশন ভঙ্গ করবেন।

বলাবাহুল্য, পাকিস্তানের ২৭টি শিয়া ও সুন্নি সংগঠন ‘আল্লামা রাজা নাসের আব্বাস জাফারি’র সাথে একাত্মতা ঘোষণা করে পাকিস্তানের ইতিহাসে সর্ববৃহত গণমিছিল আয়োজনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ঈদুল ফিতরের পর আয়োজিত এ লংমার্চে পাকিস্তানের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে ইসলামাবাদের দিকে রওনা হবে আপামর জনতা।#


আপনার মন্তব্য প্রেরণ করুন

আপনার ই-মেইল প্রকাশিত হবে না। প্রয়োজনীয় ফিল্ডসমূহ * এর মাধ্যমে চিহ্নিত করা হয়েছে

*

Pesan Haji 2018 Ayatullah Al-Udzma Sayid Ali Khamenei
We are All Zakzaky