?>
আরবাইনে হুসাইনি-৮

আঞ্জুমান-এ-পাঞ্জাতানী’র ক্ষোভ

আঞ্জুমান-এ-পাঞ্জাতানী’র ক্ষোভ

স্বাস্থ্যবিধির তোয়াক্কা না করে প্রতিবাদ মিছিল ও জানাযাসহ লোক সমাগম ঘটে এমন বিভিন্ন কর্মসূচী অব্যাহত থাকলেও খুলনায় ইমাম হুসাইন (আ.) এর পবিত্র আরবাইনের বিভাগীয় কর্মসূচী পালনের অনুমতি দেয়নি কেএমপি।

হলে বাইত (আ.) বার্তা সংস্থা (আবনা):  স্বাস্থ্যবিধির তোয়াক্কা না করে প্রতিবাদ মিছিল ও জানাযাসহ লোক সমাগম ঘটে এমন বিভিন্ন কর্মসূচী অব্যাহত থাকলেও স্বাস্থ্যবিধি মেনে সংক্ষিপ্ত আকারে ইমাম হুসাইন (আ.) এর পবিত্র আরবাইনের বিভাগীয় কর্মসূচী পালনের অনুমতি দেয়নি খুলনা মেট্রোপলিটন।

কেএমপির এমন আচরণে ক্ষোভ প্রকাশ করে বিবৃতি দিয়েছেন খুলনা মহানগরীতে অবস্থিত শিয়া মাযহাবের ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান আঞ্জুমান-এ পাঞ্জাতানীর সভাপতি হুজ্জাতুল ইসলাম সৈয়দ ইব্রাহিম খলিল রাজাভি।

বিবৃতিটি নিম্নে দেয়া হল:

 

বিসমিল্লাহির রহমানির রহিম

আমি নিচে স্বাক্ষরকারী খুলনা মহানগরীতে অবস্থিত শিয়া ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান আঞ্জুমান-এ-পাঞ্জাতানীর সভাপতি। খুলনা মহানগরীতে বসবাসকারী শিয়া মুসলিম সম্প্রদায়ের পক্ষ থেকে আমি অত্যন্ত দুঃখের সাথে স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করে জানাচ্ছি যে, করোনা প্রাদুর্ভাবের কারণে গত আশুরা মিছিল স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনের নির্দেশনার প্রতি সম্মান প্রদর্শন করে মিছিলের কর্মসূচী বাতিল করা হয়। যদিও স্বাস্থ্যবিধির তোয়াক্কা না করে বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠান, ধর্মীয় ব্যক্তিত্বের ইন্তেকালে তাঁর লক্ষ লক্ষ ভক্তবৃন্দের জানাজায় অংশগ্রহণ, সামাজিক অপরাধের প্রতিবাদে সভা-মিছিল-মানববন্ধন ইত্যাদি কর্মসূচী অব্যাহতভাবে বাংলাদেশে পালিত হচ্ছে যেখানে প্রশাসন কোন প্রকার বাধা সৃষ্টি করেনি। সম্প্রতি আঞ্জুমান-এ-পাঞ্জাতানী ইমাম হোসাইন (আ.) এর পবিত্র চেহলাম উপলক্ষে বিভাগীয় কর্মসূচী হিসেবে প্রতিবারের মত অনুমতি প্রার্থনা করে পুলিশ কমিশনার মহোদয় বরাবর গত ০১/১০/২০২০ইং তারিখে আবেদন করে। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনক হলেও সত্য যে গত ০৮/১০/২০২০ইং তারিখ বিকেলে কেএমপি থেকে মিছিলের অনুমতি নেই বলে মৌখিকভাবে জানিয়ে দেয়া হয়। শান্তিপূর্ণ এ বিভাগীয় কর্মসূচী সকল স্বাস্থ্যবিধি মেনে অতি সংক্ষিপ্তাকারে পালন করা হবে এ মর্মে স্থানীয় পুলিশ কর্মকর্তাদের বারবার অনুরোধ করা সত্ত্বেও কর্তৃপক্ষ তাদের সিদ্ধান্তে অনড় থাকেন অথচ ০৯/১০/২০২০ইং তারিখে ইসলামী আন্দোলনের ব্যানারে দলীয় কর্মিবৃন্দ বায়তুন নুর মসজিদের সামনে বিশাল সমাবেশ করে ধর্ষণের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল বের করেন। একই সময়  শিববাড়ী মোড়ে প্রতিবাদ সমাবেশ, পিকচার প্যালেস মোড়ে মানববন্ধন কর্মসূচী অনুষ্ঠিত হয়েছে বিভিন্ন সামাজিক সমস্যাকে উপলক্ষ করে। অথচ শিয়া মুসলমান সম্প্রদায়ের এ কর্মসূচী পালনের অনুমতি না দিয়ে স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন এ সম্প্রদায়ের সদস্যদের ব্যথিত করেছেন। যদিও পুলিশ প্রশাসন অতীতে আমাদের ধর্মীয় কর্মসূচী সুষ্ঠুভাবে পালনের ক্ষেত্রে সহযোগিতা করেছেন, অথচ এবার যেখানে অন্যান্য রাজনৈতিক/সামাজিক সংগঠনগুলো তাদের কর্মসূচী পালন করার অনুমতি পেলেন কিন্তু আমরা বারবার অনুরোধ করা সত্ত্বেও অনুমতি পেলাম না, এ রহস্য আমার কাছে অজানা। আমাদের প্রতি প্রশাসনের এই বিমাতাসূলভ আচরণে আমরা ক্ষোভ প্রকাশ করছি।

ওয়াসসালাম

(সৈয়দ ইব্রাহমীম খলীল রাজাভী)

সভাপতি, আঞ্জুমান-এ-পাঞ্জাতানী,

১২, আলতাপোল লেন, খুলনা।

তারিখ : ১১/১০/২০২০


সম্পর্কিত প্রবন্ধসমূহ

আপনার মন্তব্য প্রেরণ করুন

আপনার ই-মেইল প্রকাশিত হবে না। প্রয়োজনীয় ফিল্ডসমূহ * এর মাধ্যমে চিহ্নিত করা হয়েছে

*