?>

আফগানিস্তানে বালিকা বিদ্যালয়ে গণহত্যার জন্য আমেরিকা দায়ী: আইআরজিসি

আফগানিস্তানে বালিকা বিদ্যালয়ে গণহত্যার জন্য আমেরিকা দায়ী: আইআরজিসি

আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের একটি বালিকা বিদ্যালয়ে সন্ত্রাসী হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়েছে ইরানের ইসলামী বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি।

আহলে বাইত (আ.) বার্তা সংস্থা (আবনা) : তারা এক বিবৃতিতে বলেছে, কাবুলের সাইয়্যেদুশ শোহাদা (আ.) বালিকা বিদ্যালয়ে একের পর এক কয়েকটি বিস্ফোরণে ৬৫ জনের বেশি রোজাদার ছাত্রী ও তাদের মা নিহত এবং ১৬০ জন আহত হয়েছেন। এই ঘটনা আফগানিস্তানের মুসলিম ও মুজাহিদ জাতির জন্য অত্যন্ত শোক ও বেদনার।

এই বেদনাদায়ক ঘটনার জন্য মার্কিন বাহিনী দায়ী বলে আইআরজিসি মন্তব্য করেছে।

আইআরজিসি বলেছে,নানা তথ্য প্রমাণ থেকে মনে হচ্ছে তাকফিরি সন্ত্রাসীদের শক্তি বৃদ্ধির ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে এ ঘটনা ঘটানো হয়েছে। ইরাক ও সিরিয়া থেকে আমেরিকাই আফগানিস্তানে তাকফিরি সন্ত্রাসীদের নিয়ে গেছে বলে বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়। এতে আরও বলা হয়েছে,মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের প্রক্রিয়া এগিয়ে নেওয়ার একই সময়ে এ ধরণের ঘটনার জন্ম দিয়ে হোয়াইট হাউস বুঝাতে চাচ্ছে তাদের উপস্থিতি ছাড়া আফগানিস্তানে যুদ্ধ ও অনিরাপত্তা বেড়ে যাবে।

ইরানের ইসলামী বিপ্লবী গার্ড বাহিনী আইআরজিসি আফগানিস্তানে সন্ত্রাসী তৎপরতায় সহযোগিতা ও উসকানি বন্ধ করতে আমেরিকার প্রতি আহ্বান জানিয়েছে।

শনিবার কাবুলে একটি বালিকা স্কুলকে লক্ষ্য করে চালানো সন্ত্রাসী হামলায় দুই শতাধিক শিশু ও নারী হতাহত হলেও বিশ্বের গণমাধ্যম ও রাজনৈতিক মহলে এ বিষয়ে বড় ধরণের প্রতিক্রিয়া লক্ষ্য করা যাচ্ছে না। কিন্তু এই ঘটনা ইউরোপ-আমেরিকার কোথাও ঘটলে আজ গোটা বিশ্বেই সেই শোকের আবহ ছড়িয়ে দেওয়া হতো।#

342/


আপনার মন্তব্য প্রেরণ করুন

আপনার ই-মেইল প্রকাশিত হবে না। প্রয়োজনীয় ফিল্ডসমূহ * এর মাধ্যমে চিহ্নিত করা হয়েছে

*