?>

আলে খলিফার কারাগারে আটক বাহরাইনী বিপ্লবীর মৃত্যু (ছবি)

জরুরি চিকিৎসা সেবা প্রদানে অবহেলার কারণে মানামাতে বাহরাইনের কেন্দ্রীয় কারাগার ‘জাও’-এ প্রাণ হারিয়েছেন দেশটির বিপ্লবী নাগরিক ‘আব্বাস হাসান আলী মালুল্লাহ’।

হলে বাইত (আ.) বার্তা সংস্থা (আবনা): জরুরি চিকিৎসা সেবা দিতে অবহেলা করায় আলে খলিফার কারাগারে প্রাণ হারিয়েছেন বাহরাইনের বিপ্লবী নাগরিক ‘আব্বাস হাসান আলী মালুল্লাহ’।

বাহরাইনের আল-উইফাক সোসাইটি এক বিবৃতি ঐ বিপ্লবীর শাহাদাতের সংবাদ নিশ্চিত করে জানিয়েছে, গুরুতর অসুস্থ থাকা সত্ত্বেও কারা কর্মকর্তাদের অবহেলা ও চিকিৎসকদের অযত্নের কারণে তিনি মারা গেছেন।

‘আব্বাস হাসান আলী’কে ২০১১ সালের ১৭ই মে বাহরাইনের স্বৈরাচারী সরকার আলে খলিফা’র বিরুদ্ধে অনুষ্ঠিত শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ থেকে আটক করে আলে খলিফার ভাড়াটে বাহিনী। তাঁর বিরুদ্ধে উদ্ভট অভিযোগ তুলে আলে খলিফার নিয়ন্ত্রণাধীন আদালত তাকে ১৫ বছর কারাদণ্ড প্রদান করে। আটকের সময়ে তার শরীরে বিদ্ধ গুলির অংশ অবশিষ্ট থাকায় তিনি গুরুতর অসুস্থ ছিলেন।

আল-উইফাকের ঐ বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, তাকে হাসপাতালে স্থানান্তরের বিষয়ে কারা কর্তৃপক্ষ বিলম্ব করেছে।

এদিকে ‘কোয়ালিশন ইয়থ অব ১৪ ফেব্রুয়ারি রেভোল্যুশন’ এক বিবৃতিতে, চিকিৎসকদের ইচ্ছাকৃত অবহেলার কারণে বাহরাইনি এ বিপ্লবী শহীদ হয়েছেন বলে উল্লেখ করেছে। বিবৃতিতে রাজনৈতিক বন্দীদের মুক্তির বিষয়ে জনগণের সমর্থন অব্যাহত রাখার প্রতি গুরুত্বারোপ করা হয়েছে।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, গুরুতর অসুস্থ আব্বাস হাসানকে দ্রুত চিকিৎসা সেব প্রদান না করার কারণে তিনি শহীদ হয়েছেন। শহীদ আব্বাস মালুল্লাহ কথা বলতে পারছিলেন না এবং ঠিকভাবে নিঃশ্বাসও নিতে পারছিলেন না। তিনি হাত দিয়ে হার্টের দিকে ইশারা করছিলেন। এ সময় অন্যান্য কয়েদীরা জরুরি চিকিৎসা সেবা চাইলেও কারা রক্ষীরা উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের অনুমতি না থাকার অজুহাত দেখিয়ে চিকিৎসা সেবা প্রদানে অসম্মতি জানায়। আর এ কারণে তার অবস্থা আরও শোচনীয় হয়ে ওঠে। এরপর দেরীতে তাকে হাসপাতালে নেয়ার সময় তিনি পথে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

এদিকে, বাহরাইনের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় দাবী করেছে, তার স্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে। হৃদজনিত সমস্যা ছিল তার, হাসপাতালে নেয়ার পর তিনি মারা যান।#176


সম্পর্কিত প্রবন্ধসমূহ

আপনার মন্তব্য প্রেরণ করুন

আপনার ই-মেইল প্রকাশিত হবে না। প্রয়োজনীয় ফিল্ডসমূহ * এর মাধ্যমে চিহ্নিত করা হয়েছে

*