?>

এ যেন যুদ্ধাক্রান্ত কোনো দেশ; যুক্তরাষ্ট্রে ৩ দিনে গুলিতে নিহত ১৫০

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে গুলিতে মাত্র ৭২ ঘণ্টায় কমপক্ষে ১৫০ জন নিহত হয়েছেন। মার্কিন টিভি চ্যানেল সিএনএন জানিয়েছে, গত শুক্র থেকে রোববার- এই তিন দিনে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন স্থানে চার শতাধিক গুলির ঘটনা ঘটেছে। এসব ঘটনায় কমপক্ষে ১৫০ জন নিহত হয়েছেন। নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।


আহলে বাইত (আ.) বার্তা সংস্থা (আবনা) : মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে সাধারণভাবে প্রতিদিনই গুলিতে কয়েক ডজন মানুষের মৃত্যু হয়। তবে ঐ তিন দিন মৃত্যুর সংখ্যা স্বাভাবিক প্রবণতার চেয়ে কিছুটা বেশি ছিল। কারণ গত ৪ জুলাই ছিল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের স্বাধীনতা দিবস।

 এদিন সারা দেশে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল। দেশটির কোথাও হয়েছে প্যারেড, কোথাও আতশবাজি ফোটানো হয়েছে। একইসঙ্গে চলেছে ব্যাপক গুলি।

যুক্তরাষ্ট্রের গবেষণা প্রতিষ্ঠান গান ভায়োলেন্স আর্কাইভ এসব তথ্য প্রকাশ করেছে। তারা বলেছে, শিকাগোতে তুলনামূলক বেশি গুলি ও মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। শিকাগো হচ্ছে আমেরিকার তৃতীয় বৃহত্তম নগরী। এ শহরে ৪ জুলাই একদিনে মোট ৮৮ জনকে গুলি করা হয়েছে। এতে মারা গেছেন ১৪ জন।

সহিংসতার পরিমাণ বেড়েছে নিউইয়র্কেও। সেখানকার পুলিশ দপ্তর জানিয়েছে, এ শহরে শুক্র থেকে রোববার পর্যন্ত ২১টি স্থানে গুলির ঘটনা ঘটেছে। এতে হতাহত হয়েছেন ২৬ জন। যদিও এ সংখ্যা গত বছরের ঠিক এই সময়ের তুলনায় কম।

গত বছর ঠিক এই তিন দিনে হতাহত হয়েছিলেন ৩০ জন, গুলির ঘটনা ঘটেছিল ২৫টি স্থানে। তবে বার্ষিক পরিসংখ্যান বলছে, গত বছরের তুলনা এ বছর নিউইয়র্কে গুলির ঘটনা ৪০ শতাংশ বেড়েছে। এ বছর গুলির ঘটনা ঘটেছে ৭৬৭টি। আর হতাহত হয়েছেন ৮৮৫ জন।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে অস্ত্র কেনা-বেচার ওপর কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। এত মৃত্যুর পরও অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ আইন করছে না দেশটি। সব সরকারই অস্ত্র নির্মাণ কোম্পানি ও ব্যবসায়ীদের স্বার্থে কাজ করে যাচ্ছে।#

342/


আপনার মন্তব্য প্রেরণ করুন

আপনার ই-মেইল প্রকাশিত হবে না। প্রয়োজনীয় ফিল্ডসমূহ * এর মাধ্যমে চিহ্নিত করা হয়েছে

*