?>

কোভিডের বাড়বাড়ন্তের জন্য কেন্দ্রীয় সরকার দায়ী : মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

কোভিডের বাড়বাড়ন্তের জন্য কেন্দ্রীয় সরকার দায়ী : মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী ও তৃণমূল সভানেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, কেন্দ্রীয় সরকারের সম্পূর্ণ ব্যর্থতার ফলে কোভিড পরিস্থিতি বৃদ্ধি হয়েছে।

আহলে বাইত (আ.) বার্তা সংস্থা (আবনা) : তিনি আজ (শুক্রবার) পশ্চিম বর্ধমানের দুর্গাপুরে এক ভার্চুয়াল সভায় বক্তব্য রাখার সময়ে ওই মন্তব্য করেন।   

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘কেন্দ্রীয় সরকারের সম্পূর্ণ অবহেলার জন্য ভারতে আজ কোভিডের এই পরিস্থিতি হয়েছে। নির্বাচনের জন্য রাজ্যে ২ লাখ বাইরের ফোর্স পড়ে আছে। যেটা বার বার আমি মানুষকে বলেছি।  আমি গণমাধ্যমকেও বলেছি যে বহিরাগতরা বাইরে থেকে পড়ে আছে। বিজেপির লক্ষাধিক লোক, বিভিন্ন রাজ্যের মন্ত্রী-সান্ত্রী থেকে শুরু করে মানে চুনোপুঁটি মন্ত্রী থেকে শুরু করে বড় সকলেই আছেন। ২ লাখ পুলিশ ফোর্স এখানে পড়ে আছে। সুতরাং এই যে ৩/৪ লাখ লোক তারা যে কোভিড ছড়াচ্ছে না এটা তো বলা যাবে না। তার কারণ আপনারা দেখছেন সাংবাদিকরা একসাথে কাজ করতে গিয়ে কত সাংবাদিক আক্রান্ত হয়েছেন।’

নির্বাচন কমিশনের সমালোচনা করে মমতা বলেন, ‘প্রচারে কাটছাঁট করা হচ্ছে আমরা মেনে নিচ্ছি। আমরা নিশ্চয়ই চাই না যে জনগণ আক্রান্ত হোক। কিন্তু নির্বাচন কমিশনের উচিত ছিল শেষ তিন দফার নির্বাচন একসঙ্গে করা। কী হতো তাতে? ৮ দফার জায়গায় ৫ দফায় নির্বাচন  হতো। তবে নির্বাচন কমিশন, আপনারা তো জানেন বিজেপির কথা শুনে চলে। বিজেপি যা বলবে তাই করবে। নির্বাচন কমিশনকে বার বার আমরা বলেছিলাম ৮ দফায় নির্বাচন করার কোনও প্রয়োজন নেই।’

মমতা বলেন, ‘আমি মানুষকে বলব একটা করে ভোট খুব গুরুত্বপূর্ণ। কারণ ভোটার তালিকায় নাম না থাকলে আপনাকে যেকোনো দিন এনপিআর (জাতীয় জনসংখ্যা নিবন্ধন), এনআরসি (জাতীয় নাগরিক পঞ্জি) করতে পারে। আপনার রেকর্ডটা বাতিল করে দিতে পারে। সুতরাং, আমি এনপিআর-এনআরসি করতে দেবো না। সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ/ক্যা) করতে দেবো না এটা আমাদের চির সিদ্ধান্ত। কিন্তু কথা হচ্ছে সবাইকে একটা করে ভোট কষ্ট করে হলেও দিতে হবে।’

তিনি করোনা ইস্যুতে কেন্দ্রীয় সরকারের সমালোচনা করে বলেন,  ‘কোভিডের এত বাড়বাড়ন্ত হয়েছে তার কারণ হল কেন্দ্রীয় সরকারের সম্পূর্ণ ব্যর্থতা। বিজেপি সরকার বাংলা দখল করতে চাচ্ছে, সারা ভারতের সবাই মিলে বাংলা দখল করতে এসেছে।

‘বাংলা দখল করার নাম করে বাংলাকেও আজ কোভিড সঙ্কটে ফেলে দিয়েছে এবং সারা দেশকে সঙ্কটের মধ্যে ফেলে দিয়েছে। এটা খুব দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা’ বলেও মন্তব্য করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। #

342/


আপনার মন্তব্য প্রেরণ করুন

আপনার ই-মেইল প্রকাশিত হবে না। প্রয়োজনীয় ফিল্ডসমূহ * এর মাধ্যমে চিহ্নিত করা হয়েছে

*