?>

গাজার বিভিন্ন স্থানে ইসরাইলি যুদ্ধবিমান ও ড্রোনের আগ্রাসী হামলা

গাজার বিভিন্ন স্থানে ইসরাইলি যুদ্ধবিমান ও ড্রোনের আগ্রাসী হামলা

ইহুদিবাদী ইসরাইলের যুদ্ধবিমান ও ড্রোন থেকে ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকার মধ্য ও উত্তর অংশে নতুন করে আগ্রাসন চালানো হয়েছে।

আহলে বাইত (আ.) বার্তা সংস্থা (আবনা): ফিলিস্তিনের সরকারি বার্তা সংস্থা ওয়াফা জানিয়েছে, আজ (শনিবার) সকালের দিকে ইহুদিবাদী ইসরাইলের একটি ড্রোন থেকে গাজা উপত্যকার কেন্দ্রস্থলে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানো হয়। এরপর সেখানে ইসরাইলি জঙ্গিবিমান থেকে চারটি ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানো হয়েছে। এসব হামলায় একটি ভবন ধ্বংস হয় এবং সেখানে আগুন ধরে যায়।

গাজার দক্ষিণাংশের জয়তুন শহরের মালাকা স্থাপনায় ইহুদিবাদী ইসরাইলের বিমান থেকে ক্ষেপণাস্ত্র ছোঁড়া হয়। হামলায় ভবনটি একেবারে মাটির সাথে মিশে যায়। ক্ষেপণাস্ত্র হামলার পর সেখানে ভয়াবহভাবে আগুন ধরে যায় এবং পুরো এলাকা কালো ধোঁয়ার কুণ্ডলিতেছেয়ে যায়।

একইভাবে গাজা উপত্যকার উত্তরাঞ্চলে অবস্থিত বেইত লাহিয়া শহরে একটি অবস্থান লক্ষ্য করে ড্রোন থেকে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানো হয়। এতে ওই অবস্থানটি সম্পূর্ণভাবে ধ্বংস হয় এবং আশপাশের কিছু বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

বেইত লাহিয়া শহরের পূর্ব অংশে আরো একটি ভবন লক্ষ্য করে ইহুদিবাদী ইসরাইলের ড্রোন থেকে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানো হয় এবং এ ভবনটি মাটির সাথে মিশে যায়।

এসব হামলার পরও ইহুদিবাদী সেনাদের যুদ্ধবিমান এবং ড্রোনগুলো গাজার আকাশে টহল দিতে থাকে এবং মাঝে মধ্যেই বিস্ফোরণের শব্দ শোনা গেছে।

দখলদার ইসরাইল বাহিনী এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, গাজা উপত্যকার প্রতিরোধ আন্দোলনের কয়েকটি অবস্থান লক্ষ্য করে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানো হয়েছে। তবে ক্ষয়ক্ষতির ব্যাপারে তাৎক্ষণিকভাবে কোনো তথ্য পাওয়া যায় নি।

এদিকে, ফিলিস্তিনের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন ও হামাসের মুখপাত্র হাজেম কাসেম ইসরাইলি এই হামলার কঠোর নিন্দা জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ইহুদিবাদী ইসরাইল পবিত্র আল-কুদস শহরের বিরুদ্ধে যে আগ্রাসন চালিয়ে আসছে তারই বর্ধিত রূপ হচ্ছে গাজার ওপর হামলা চালানো।#



342/


আপনার মন্তব্য প্রেরণ করুন

আপনার ই-মেইল প্রকাশিত হবে না। প্রয়োজনীয় ফিল্ডসমূহ * এর মাধ্যমে চিহ্নিত করা হয়েছে

*