?>

চীন ও রাশিয়ার মহাকাশ সক্ষমতা আমেরিকার জন্য উদ্বেগের কারণ: জেনারেল

চীন ও রাশিয়ার মহাকাশ সক্ষমতা আমেরিকার জন্য উদ্বেগের কারণ: জেনারেল

মার্কিন সেনাবাহিনীর স্পেস ফোর্সের কমান্ডার মেজর জেনারেল জন রেমন্ড বলেছেন, চীন ও রাশিয়া এমন অস্ত্র তৈরি করেছে যেগুলো দিয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কৃত্রিম উপগ্রহগুলোকে নিষ্ক্রিয় করা বা ধ্বংস করে দেয়া সম্ভব। তিনি শনিবার ওয়াশিংটন পোস্টকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এ মন্তব্য করেছেন।

আহলে বাইত (আ.) বার্তা সংস্থা (আবনা) : তিনি গত মার্চ মাসের গোড়ার দিকেও একবার একই ধরনের বক্তব্য দিয়েছিলেন।  সে সময় তিনি নিউ ইয়র্ক টাইমসকে বলেছিলেন, মহাকাশে চীন ও রাশিয়া যে সক্ষমতা অর্জন করেছে তা আমেরিকার মাথাব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

জেনারেল রেমন্ড তখন আরো বলেছিলেন, দু’টি দেশের কাছেই বিভিন্ন মাত্রা ও শক্তির লেজার প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা রয়েছে যা দিয়ে ভূপৃষ্ঠে বসেই মহাকাশে অবস্থিত কৃত্রিম উপগ্রহগুলোকে ধ্বংস করে ফেলা বা অন্তত নিষ্ক্রিয় করে দেয়া সম্ভব।

সে সময় রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ মার্কিন জেনারেলের বক্তব্য প্রত্যাখ্যান করে বলেছিলেন, রাশিয়ার মহাকাশ সক্ষমতা নিয়ে আমেরিকার উদ্বেগ ভিত্তিহীন; কারণ, রাশিয়া একটি শান্তিকামী দেশ। 

এবার জেনারেল রেমন্ড ওয়াশিংটন পোস্টকে দেয়া সাক্ষাৎকারে বলেছেন, “মহাকাশ হচ্ছে নৌ, স্থল ও আকাশের মতোই যুদ্ধ করার মতো একটি স্থান। বিগত বছরগুলোতে চীন ও রাশিয়া মহাকাশে যুদ্ধ করার এমন সক্ষমতা অর্জন করেছে যে, তারা ভূমিতে বসে বা মহাকাশ থেকে কিংবা সাইবার প্রযুক্তি ব্যবহার করে আমাদের উপগ্রহগুলোকে ধ্বংস করে দিতে পারে।”

অবশ্য মার্কিন সেনাবাহিনীর স্পেস ফোর্সের কমান্ডার একথাও বলেছেন, আমেরিকা এমন কোনো যুদ্ধ চায় না যা মহাকাশে শুরু হবে বা ওই পর্যন্ত ছড়িয়ে পড়বে। কাজেই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র তেমন ঘটনা প্রতিহত করার চেষ্টা করবে যাতে মহাকাশ সবার জন্য নিরাপদ থাকে।#

342/


আপনার মন্তব্য প্রেরণ করুন

আপনার ই-মেইল প্রকাশিত হবে না। প্রয়োজনীয় ফিল্ডসমূহ * এর মাধ্যমে চিহ্নিত করা হয়েছে

*