মহড়ায় আমন্ত্রণ জানিয়েছে থাইল্যান্ড, আছে যুক্তরাষ্ট্রও

মহড়ায় আমন্ত্রণ জানিয়েছে থাইল্যান্ড, আছে যুক্তরাষ্ট্রও

রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে নৃশংস নির্যাতনের দায়ে বিশ্ব সম্প্রদায় মিয়ানমারের যে সেনাবাহিনীকে দায়ী করছে তাদেরকেই যুক্তরাষ্ট্র ও থাইল্যান্ডের নেতৃত্বাধীন বড় ধরনের বহুজাতিক সামরিক মহড়ায় আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

আবনা ডেস্কঃ রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে নৃশংস নির্যাতনের দায়ে বিশ্ব সম্প্রদায় মিয়ানমারের যে সেনাবাহিনীকে দায়ী করছে তাদেরকেই যুক্তরাষ্ট্র ও থাইল্যান্ডের নেতৃত্বাধীন বড় ধরনের বহুজাতিক সামরিক মহড়ায় আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। আগামী বছর এই মহড়া হওয়ার কথা। পেন্টাগনের মুখপাত্র লেফটেন্যান্ড কর্নেল ক্রিস্টোফার লোগান বলেছেন, ওই মহড়ায় মিয়ানমারকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে থাইল্যান্ড। যুক্তরাষ্ট্র ও থাইল্যান্ড সেনাবাহিনীর হাজার হাজার সদস্য বার্ষিক এই মহড়ায় অংশ নিচ্ছে আগামী বছর। এই মহড়ার নাম দেয়া হয়েছে ‘কোবরা গোল্ড’ মহড়া। এতে যুক্ত থাকবে এশিয়ার আরো অনেক দেশ।
এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। এতে বলা হয়েছে, ওই মহড়ায় মিয়ানমারকে মানবিক সহায়তা ও দুর্যোগে ত্রাণ বিষয়ে পর্যবেক্ষণের দায়িত্ব পালনের জন্য আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। এ বিষয়ে রাজকীয় থাই সশস্ত্র বাহিনীর জয়েন্ট ইন্টেলিজেন্সের ডিরেক্টরেটের একজন সিনিয়র কর্মকর্তা বলেছেন, মিয়ানমার ওই আমন্ত্রণ গ্রহণ করেছে কিনা সে বিষয়ে তারা স্পষ্ট জানতে পারেন নি। তারা যাতে এই মহড়ায় যোগ দেয় সে জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছে থাইল্যান্ড। রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে নৃশংস নির্যাতন করা সত্ত্বেও মিয়ানমারকে কেন আমন্ত্রণ জানানো সিদ্ধান্ত নিয়েছে থাইল্যান্ড এমন প্রশ্নের জবাবে ওই কর্মকর্তা বলেছেন, আলোচনায় এসব বিষয় আসে নি কখনো। আমরা ওই ইস্যুটিকে আলাদা করে রেখেছি। আমাদের লক্ষ্য হলো প্রশিক্ষণ, শিক্ষা ও সামরিক সহযোগিতা। মিয়ানমার জড়িত হোক এই মহড়ায় এটা আমাদের প্রত্যাশা। প্রশ্ন কর্তার উদ্দেশে তিনি বলেন, (আপনারা যে বিষয়ে কথা বলছেন) সেটা তো রাজনীতি। আমরা সেনাবাহিনী। আর যেটা করতে যাচ্ছি সেটা হলো সামরিক মহড়া। এ বিষয়ে মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর কাছে মন্তব্য জানার চেষ্টা করেন রয়টার্সের সাংবাদিক। কিন্তু এতে তারা সাড়া দেয় নি। সাংবাদিকরা জানতে চান, মিয়ানমারকে আমন্ত্রণ না জানাতে থাইল্যান্ডের ওপর কোনো চাপ প্রয়োগ করেছে কিনা যুক্তরাষ্ট্রের সেনারা? এমন প্রশ্নের জবাব দিতে অস্বীকৃতি জানায় পেন্টাগন। রোহিঙ্গা মুসলিমদের বিরুদ্ধে নৃশংসতা চালানোর কারণে এই সপ্তাহে মিয়ানমারের জেনারেল মুয়াং মুয়াং সোয়ে সহ ১৩টি গুরুত্বর মানবাধিকার লঙ্ঘনকারী ও দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অবরোধ দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। ইউএস ন্যাশনাল ওয়ার কলেজের প্রফেসর জাচারি আবুজা বলেছেন, মিয়ানমারকে এই মহড়ায় আমন্ত্রণ জানানো ন্যাক্কারজনক। এর মধ্য দিয়ে ভুল বার্তা দেয়া হয়। ২০১৭ সালে অনুষ্ঠিত কোবরা গোল্ড মহড়ায় অংশ নিয়েছিল অথবা পর্যবেক্ষকের দায়িত্বে ছিল মোট ২৯ টি দেশ। এর মধ্যে ছিল মিয়ানমারও।


আপনার মন্তব্য প্রেরণ করুন

আপনার ই-মেইল প্রকাশিত হবে না। প্রয়োজনীয় ফিল্ডসমূহ * এর মাধ্যমে চিহ্নিত করা হয়েছে

*

ইসলামের মহান সেনাপতি জে. কাসেম সোলাইমানি ও আবু মাহদি আল-মুহানদিস
We are All Zakzaky
conference-abu-talib
No to deal of the century