?>

বাংলা থেকে কোনো মানুষকে কেউ তাড়িয়ে দিতে পারবে না: মমতা

বাংলা থেকে কোনো মানুষকে কেউ তাড়িয়ে দিতে পারবে না: মমতা

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, বাংলা থেকে কোনো মানুষকে কেউ তাড়িয়ে দিতে পারবে না। তিনি আজ (মঙ্গলবার) ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের জন্মভিটা বীরসিংহ গ্রামে তাঁর জন্মের দুইশত বর্ষের অনুষ্ঠানের সূচনা বক্তব্য ওই মন্তব্য করেন।

(ABNA24.com) বিজেপির কেন্দ্রীয় ও রাজ্য নেতারা পশ্চিমবঙ্গে জাতীয় নাগরিকপঞ্জি বা এনআরসি কার্যকর করার কথা বলছেন। বেআইনি অনুপ্রবেশকারীদের দেশ থেকে বেছে বেছে বের করে দেয়ার কথা বলছেন। রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষের দাবি, প্রায় ২ কোটি বাংলাদেশি মুসলিম ঢুকেছে। বাংলাদেশি অবৈধ ‘অনুপ্রবেশকারী মুসলিম’দের জন্যই এনআরসি’র প্রয়োজন আছে।’

এ সম্পর্কে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আজ বলেন, ‘বাংলার মানুষ যারা, এদেশের মানুষ, বাংলায় আছেন দীর্ঘদিন ধরে, বাংলা আপনার ঘরবাড়ি, সংসার। কোনো মানুষকে বাংলা থেকে কেউ তাড়িয়ে দিতে পারবে না। এটা আমার কাছে আজকে শুনে রাখুন। আমি ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের বসতবাটিতে দাঁড়িয়ে, এই পুণ্যমাটিতে দাঁড়িয়ে বলে যাচ্ছি কোনো এনআরসি বাংলায় হবে না। সব মানুষ ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন, সুন্দর থাকুন।’

মমতা বলেন, ‘কেউ কেউ ভয় দেখিয়ে বলছেন, ১৯৭১ সালের নাকি সার্টিফিকেট চাই! তবে নাকি এনআরসি হবে। কোনো এনআরসি হবে না। কোনো এনআরসি-টেনারসি নিয়ে চিন্তা করবেন না। দশ বছর পরপর আদমশুমারি হয়। এটা সারাজীবন ধরে হয়ে আসছে। এগুলো রুটিন বিষয়। আপনাদের চিন্তা করার কোনো কারণ নেই।’

বিজেপিকে টার্গেট করে মমতা আজ বলেন, ‘বিদ্যাসাগরের মূর্তি আজ নতুন করে স্থাপন করতে হল। তাঁর কারণ, বাংলার সংস্কৃতিকে ভুলিয়ে দেয়ার জন্য একদল ধর্মান্ধ, সন্ত্রাসী, উন্মত্ত দানবিকতার লোক তারা হয়ত বিদ্যাসাগরকে চেনেনও না! তারা গিয়ে তাঁর মূর্তিকে ভেঙে দিয়েছিলেন। একবারও ওঁরা ভাবলেন না ওটা মাটির মূর্তি  নয়। মাটির মূর্তি ভাঙলে তৈরি করা যায়। একটা সভ্যতা, একটা যুগ, একটা ইতিহাস, একটা দর্শন, একটা সাহিত্য, একটা সংস্কৃতি। তাঁর মূর্তি ভেঙে দিয়ে সব শেষ করা যায় না।’

গত মে মাসে পশ্চিমবঙ্গের রাজধানী কোলকাতায় বিজেপি’র এক মিছিল চলাকালীন তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষে বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙচুর করা হয়। তৃণমূলের অভিযোগ, বিজেপি সমর্থকরা ওই মূর্তি ভেঙেছে। কিন্তু বিজেপি সেসময় ওই অভিযোগ অস্বীকার করে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আজ সেই প্রসঙ্গ উল্লেখ করে বিজেপি’র বিরুদ্ধে তীব্র সমালোচনায় সোচ্চার হন। #



/129


আপনার মন্তব্য প্রেরণ করুন

আপনার ই-মেইল প্রকাশিত হবে না। প্রয়োজনীয় ফিল্ডসমূহ * এর মাধ্যমে চিহ্নিত করা হয়েছে

*