?>

বাস্তবসম্মত দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে ইরানের সঙ্গে আলোচনায় বসতে হবে

বাস্তবসম্মত দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে ইরানের সঙ্গে আলোচনায় বসতে হবে

ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী হোসেইন আমির-আব্দুল্লাহিয়ান বলেছেন, ‘পরিস্থিতির সঠিক উপলব্ধি’র ভিত্তিতে ভিয়েনায় পরমাণু সমঝোতা পুনরুজ্জীবনের আলোচনা আবার শুরু হতে পারে। তিনি বৃহস্পতিবার জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেসের সঙ্গে এক টেলিফোনালাপে এ মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, পরমাণু সমঝোতায় ফিরে যাওয়ার বিষয়টি বিবেচনায় রেখেছে তেহরান।

আহলে বাইত (আ.) বার্তা সংস্থা (আবনা) : আব্দুল্লাহিয়ান বলেন, তার দেশ কূটনৈতিক উপায়ে যেকোনো সমস্যা সমাধানের নীতিতে বিশ্বাসী এবং এ কারণেই ইরান ভিয়েনা সংলাপে ফিরতে চায়। কিন্তু দুঃখজনকভাবে আমেরিকা নিষেধাজ্ঞা বলবৎ রেখে একথা ভাবছে যে, বিষয়টিকে ভিয়েনা সংলাপে ইরানের ওপর চাপ সৃষ্টির কৌশল হিসেবে ব্যবহার করা যাবে। ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, চাপ সৃষ্টির চেষ্টা হলে ইরান কখনোই নতি স্বীকার করবে না।

এর আগে গত বুধবার (৮ সেপ্টেম্বর) আমেরিকা ও জার্মানি ইরানকে যথাশীঘ্র সম্ভব ভিয়েনা সংলাপে ফিরে যাওয়ার আহ্বান জানিয়েছে। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন তার জার্মান সমকক্ষ হেইকো মাসের সঙ্গে এক যৌথ সংবাদ সম্মেলনে বলেন, আমেরিকা এমন একটি অবস্থায় পৌঁছে যাচ্ছে যখন দেশটি ইরানের সঙ্গে কোনো সমঝোতায় উপনিত হওয়ার আশা পরিত্যাগ করবে। এ সময় মাস বলেন, পরমাণু সমঝোতা পুনরুজ্জীবনের আলোচনায় প্রত্যাবর্তনের জন্য দুই থেকে তিনমাস সময় নিয়ে ইরান অনেক দেরি করে ফেলেছে।

জাতিসংঘ মহাসচিবের সঙ্গে টেলিফোনালাপে ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরো বলেন, অন্য পক্ষগুলোকে বাস্তবসম্মত দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে ভিয়েনায় আসতে হবে এবং ইরানি জনগণের অধিকার ও স্বার্থের প্রতি প্রকৃত অর্থেই সম্মান দেখাতে হবে। আর আমাদের দৃষ্টিতে আলোচনা তখনই গ্রহণযোগ্য হবে যখন তা থেকে উল্লেখযোগ্য ফলাফল বেরিয়ে আসবে। #

342/


আপনার মন্তব্য প্রেরণ করুন

আপনার ই-মেইল প্রকাশিত হবে না। প্রয়োজনীয় ফিল্ডসমূহ * এর মাধ্যমে চিহ্নিত করা হয়েছে

*