?>

বিক্ষোভে উসকানি দেয়ার অভিযোগ অস্বীকার

বিক্ষোভে উসকানি দেয়ার অভিযোগ অস্বীকার

মিয়ানমারের ক্ষমতাচ্যুত সাবেক সরকারের কার্যত প্রধান অং সাং সুচি তার বিরুদ্ধে আনা বিক্ষোভে উসকানি দেয়ার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

আহলে বাইত (আ.) বার্তা সংস্থা (আবনা) : গত ১ ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারে সামরিক অভ্যুত্থানের পর এই প্রথম তিনি আদালতে হাজির  হয়ে কোনো শুনানিতে অংশ নিলেন।

গতকাল (মঙ্গলবার) সুচি রাজধানী নেইপেইতাওয়ের একটি বিশেষ আদালতের শুনানিতে অংশ নেন। গত ফেব্রুয়ারিতে সামরিক অভ্যুত্থানের পর অং সাং সুচির দল ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্রেসি দুটি বিবৃত দিয়েছিল। তাতে দলটি সামরিক অভ্যুত্থানের নিন্দা জানিয়ে জান্তা সরকারকে সহযোগিতা না করার জন্য আন্তর্জাতিক সমাজের প্রতি আহ্বান জানিয়েছিল।

আদালতে সুচি যে বক্তব্য দিয়েছেন তার বিস্তারিত কোনো তথ্য পাওয়া যায় নি কারণ গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলার ব্যাপারে সামরিক সরকারের পক্ষ থেকে তার ওপরে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। আদালতের মামলা ও শুনানি প্রসঙ্গেও গণমাধ্যমের সঙ্গে তিনি কথা বলতে পারবেন না বলে তার ওপর সীমাবদ্ধতা আরোপ করা আছে।

আদালতের শুনানিতে সাধারণ মানুষ কিংবা সাংবাদিক কেউই প্রবেশের অনুমতি পান নি। মামলার কার্যক্রমের ওপর কোনো ধরনের মন্তব্য করার অনুমতি দেয়া হয় নি আইনজীবীদেরও। এছাড়া, রাষ্ট্রনিয়ন্ত্রিত গণমাধ্যমগুলো সরাসরি এ বিষয়ে কোনো খবর প্রচার করে নি।

তবে অং সাং সুচির ডিফেন্স টিমের একজন সদস্য নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানিয়েছেন, আদালতে সুচি বেশ ভালোভাবেই নিজেকে নির্দোষ বলে তুলে ধরতে সক্ষম হয়েছেন। এ মামলায় অং সাং সুচি সরকারের প্রেসিডেন্ট উইনমিন্টকেও আসামি করা হয়েছে। দোষী সাব্যস্ত হলে তারা অন্তত তিন বছরের কারাদণ্ডের মুখে পড়বেন।#

342/


আপনার মন্তব্য প্রেরণ করুন

আপনার ই-মেইল প্রকাশিত হবে না। প্রয়োজনীয় ফিল্ডসমূহ * এর মাধ্যমে চিহ্নিত করা হয়েছে

*