?>

সার্কের করোনা সম্মেলন: কাশ্মির থেকে নিষেধাজ্ঞা তোলার আহ্বান জানাল পাকিস্তান

সার্কের করোনা সম্মেলন: কাশ্মির থেকে নিষেধাজ্ঞা তোলার আহ্বান জানাল পাকিস্তান

করোনাভাইরাসের জন্য সৃষ্ট স্বাস্থ্য সংক্রান্ত জরুরি অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মিরে আরোপিত নিষেধাজ্ঞা এবং বিধি-নিষেধ তুলে নেয়ার আহ্বান জানিয়েছে পাকিস্তান। পাকিস্তানের স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. জাফর মির্জা আজ(রোববার) ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির প্রতি এ আহ্বান জানান।

(ABNA24.com) তিনি বলেন, ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মিরে কোভিড-১৯’র প্রকোপ দেখা দেয়ার উদ্বেগ সৃষ্টিকারী খবর পাওয়া গেছে। এ অবস্থায় কাশ্মিরের ওপর আরোপিত নয়াদিল্লির সব নিষেধাজ্ঞা এবং বিধি-নিষেধ জরুরিভিত্তিতে তুলে নেয়া প্রয়োজন।

গত বছরের ৫ আগস্ট কাশ্মিরের বিশেষ মর্যাদা একতরফা ভাবে বাতিল করে দেয়া ভারত। সে থেকে জম্মু ও কাশ্মিরের ওপর নিষেধাজ্ঞাও চাপিয়ে দেয়া হয়। অবশ্য, আন্তর্জাতিক সমালোচনার মুখে ভারত সেখানকার কিছু কিছু নিষেধাজ্ঞা শিথিল করতে শুরু করেছে।

কোভিড-১৯ মোকাবিলায় করণীয় ও গৃহীত পদক্ষেপ’ নিয়ে সার্কভুক্ত আট দেশের শীর্ষ নেতার নজিরবিহীন ভিডিও কনফারেন্সে কাশ্মিরের নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়ার এ আহ্বান জানায় পাকিস্তান।

কনফারেন্সে মোদি ছাড়াও বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনি, নেপালের প্রধানমন্ত্রী কেপি শর্মা ওলি, ভুটানের প্রধানমন্ত্রী শেরিং তোবগে, মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম মোহাম্মদ সলিহ, শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট গোটাবে রাজাপাকসে এবং পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের স্বাস্থ্য উপদেষ্টা ডা.জাফর মির্জা যোগ দেন।

পাশাপাশি, করোনাভাইরাসকে কেন্দ্র করে সৃষ্ট স্বাস্থ্য সংক্রান্ত জরুরি অবস্থা মোকাবেলায় সার্কভুক্ত দেশগুলোকে আঞ্চলিক পদ্ধতি গঠনের প্রস্তাবও দেন ডা.জাফর মির্জা।

ভারতের প্রতিক্রিয়া

এদিকে, অনাকাঙ্ক্ষিত ভাবে কাশ্মিরের প্রসঙ্গ তুলে মানবিক একটি বিষয়কে পাকিস্তান রাজনীতিকরণের চেষ্টা করেছে বলে ভারতের সরকারি সূত্রের বরাত দিয়ে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম আজ দাবি করেছে। পাশাপাশি শীর্ষ সম্মেলনে পাকিস্তানের পক্ষ থেকে স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. জাফর মির্জাকে পাঠানোর বিষয় নিয়ে সমালোচনা করেছে ভারত। ভারত বলছে, এ পদক্ষেপের মাধ্যমে পাকিস্তান এ সম্মেলনকে গুরুত্বের সঙ্গে গ্রহণ করে নি বলে প্রতীয়মান হচ্ছে।

এ ছাড়া,  ডা. জাফর মির্জা খুব দুর্বল ভাবে কাশ্মির প্রসঙ্গে উপস্থাপন করেছেন বলেও ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম দেশটির সরকারি সূত্রের বরাত দিয়ে উল্লেখ করেছে।

ভারত ইচ্ছা করলেই পাকিস্তানকে এ ভিডিও সম্মেলন থেকে দূরে সরিয়ে রাখতে পারতো। কিন্তু সম্মেলনের বিষয়বস্তু মানবিক হওয়ায় ইসলামাবাদকে আমন্ত্রণ জানান হয় বলে একই সূত্র বলছে।

.............
340


আপনার মন্তব্য প্রেরণ করুন

আপনার ই-মেইল প্রকাশিত হবে না। প্রয়োজনীয় ফিল্ডসমূহ * এর মাধ্যমে চিহ্নিত করা হয়েছে

*