সমাজে আহলে বাইত (আ.) এর জীবন-যাপন পদ্ধতির প্রসার ঘটাতে হবে : আখতারি

  • News Code : 668061
  • Source : ABNA
Brief

আহলে বাইত (আ.) বিশ্বসংস্থার মহাসচিব বলেছেন : মানুষের সাথে আল্লাহর সম্পর্ক, নিজের এবং সমাজের সাথে তার সম্পর্কসহ সকল ক্ষেত্রে আরো মনোযোগী হতে হবে এবং গুরুত্ব প্রদান করতে হবে। এর প্রতিটি বিষয় একটি বৃহত পরিবর্তনের ক্ষেত্র প্রস্তুত করতে সক্ষম।

আহলে বাইত বার্তা সংস্থা (আবনা) : আহলে বাইত (আ.) বিশ্বসংস্থার মহাসচিব হুজ্জাতুল ইসলাম ওয়াল মুসলিমিন মুহাম্মাদ হাসান আখতারি গতকাল (বৃহস্পতিবার ২৯শে জানুয়ারি) অনুষ্ঠিত ‘আহলে বাইত (আ.) এর জীবন-যাপন পদ্ধতি’ শীর্ষ সম্মেলনের সমাপনী অনুষ্ঠানে –যা দাফতারে তাবলিগাতে ইসলামি’র অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়েছে- ইউরোপ ও উত্তর আমেরিকার যুবসমাজের উদ্দেশ্যে সর্বোচ্চ নেতার চিঠির প্রতি ইঙ্গিত করে বলেন : সর্বোচ্চ নেতার এ চিঠি অত্যন্ত গুরুত্ববহ ও আশার আলো সঞ্চারকারী। উজ্জল ভবিষ্যত আমাদের সামনে অপেক্ষা করছে।
তিনি বলেন : মহানবি হযরত মুহাম্মাদ (স.) যেভাবে বিভিন্ন ভূখণ্ডের অধিপতিদের উদ্দেশ্যে চিঠি লিখেছিলেন, তাঁর (স.) অনুকরণ করেই রাহবার ইউরোপ ও আমেরিকার যুবসমাজের উদ্দেশ্যে এ চিঠি লিখেছেন।
আহলে বাইত (আ.) বিশ্বসংস্থার মহাসচিব বলেন : যাদের উদ্দেশ্যে এ চিঠি লেখা হয়েছে তারা তাদের দেশের ভবিষ্যত কর্ণধর। প্রাচ্যের ন্যায় পশ্চিমা বিশ্বেও চোখে পড়ার মত পরিবর্তন আসবে। আর এ সময়ে আল্লাহর ইচ্ছায় কিছু কিছু বিষয়ের অবসান ও পতন হবে।
বর্তমান যুগে লাইফ স্টাইল তথা জীবন-যাপন পদ্ধতির উপর আলোচনার প্রয়োজনীয়তার প্রতি গুরুত্বারোপ করে তিনি বলেন : বর্তমান সময়ে বিশ্বে মুসলমানদের জীবন-যাপন পদ্ধতির যে প্রতিফলন ঘটছে তা একজন প্রকৃত মুসলমানের জীবন-যাপন পদ্ধতি বলে উপস্থাপন করার মত পদ্ধতি নয়। বর্তমানে তাদের লাইফ স্টাইল বিভিন্ন সংস্কৃতিতে মিশ্রিত এবং নানা পদ্ধতিকে তারা অবলম্বন করেছে, যা ইসলামি সমাজের অনাকাঙ্খিত ও অপ্রীতিকর একটি রূপ বিশ্ব দরবারে তুলে ধরছে।
তিনি বলেন : যা কিছু বর্তমানে আমরা মুসলিম সমাজে অবলোকন করছি, স্বয়ং সেগুলোই মুসলমানদের সম্পর্কে অন্যদের মনে ঘৃণার জন্ম দিচ্ছে এবং মুসলমানদের থেকে তাদের দূরে সরে যাওয়ার অন্যতম কারণ। আর তাই ‘জীবন-যাপন পদ্ধতি’ শীর্ষ সম্মেলনের আয়োজন অত্যন্ত ইতিবাচক একটি পদক্ষেপ।
তার সংযোজন : আমি আশাবাদি যে, এ সম্মেলনের বার্তা বিভিন্ন ভাষায় অনুবাদ এবং বিশ্বের মানুষের নিকট পৌঁছে দেওয়া হবে। আর এ গুরুদায়িত্ব স্বয়ং আহলে বাইত (আ.) বিশ্বসংস্থাই কাঁধে তুলে নেবে।
আহলে বাইত (আ.) বিশ্বসংস্থার মহাসচিব বলেছেন : মানুষের সাথে আল্লাহর সম্পর্ক, নিজের এবং সমাজের সাথে তার সম্পর্কসহ সকল ক্ষেত্রে আরো মনোযোগী হতে হবে এবং গুরুত্ব প্রদান করতে হবে। এর প্রতিটি বিষয় একটি বৃহত পরিবর্তনের ক্ষেত্র প্রস্তুত করতে সক্ষম।#


আপনার মন্তব্য প্রেরণ করুন

আপনার ই-মেইল প্রকাশিত হবে না। প্রয়োজনীয় ফিল্ডসমূহ * এর মাধ্যমে চিহ্নিত করা হয়েছে

*

Arba'een
Mourining of Imam Hossein
پیام رهبر انقلاب به مسلمانان جهان به مناسبت حج 1440 / 2019
We are All Zakzaky
conference-abu-talib