খুলনায় পবিত্র ঈদ-এ-গাদীর পালিত

  • News Code : 713490
  • Source : ABNA
Brief

পবিত্র গাদীর দিবস উপলক্ষে আহলে বাইত ফাউন্ডেশন ও ইসলামি শিক্ষা কেন্দ্রের যৌথ উদ্যোগে গতকাল খুলনায় বিশেষ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

হলে বাইত বার্তা সংস্থা (আবনা) : হযরত আলী (আ.) ছিলেন রাসুল করিম (সা.) এর পরে সর্বশ্রেষ্ঠ জ্ঞানী, সুবক্তা, চমৎকার ভাষা জ্ঞানের অধিকারী একজন মহান ব্যক্তিত্ব। তার জ্ঞানের গভীরতা ছিল অপরিসীম যার প্রমাণ নাহজুল বালাগা। আহলে বাইত ফাউন্ডেশন ও ইসলামি শিক্ষা কেন্দ্রের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত পবিত্র ঈদ-এ-গাদীর উপলক্ষে গতকাল শনিবার সন্ধ্যা ৭টায় আঞ্জুমান-এ-পাঞ্জাতানী ইমামবাড়ীতে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি আল মুস্তফা (সা.) আন্তর্জাতিক বিশবিদ্যালয়ের বাংলাদেশস্থ প্রতিনিধি হুজ্জাতুল ইসলাম ড. হাসান আমীর আনসারী এ কথাগুলো বলেন। প্রধান অতিথি আরো বলেন, হযরত আলী (আ.)’র জ্ঞান ও তাকওয়া থেকে আমাদেরকে শিক্ষা গ্রহণ করতে হবে।

উক্ত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যথাক্রমে বিশিষ্ট মুফাসসিরে কুরআন মাওলানা মওদুদুল হক, বিশিষ্ট আলেমে দ্বীন, খুলনা তালিমুল মিল্লাত রহমাতিয়া মাদ্রাসার আরবী বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক মাওলানা আব্দুল মজিদ, বিশিষ্ট আইনজীবী ও সাংবাদিক অধ্যাপক ড. মোঃ জাকির হোসেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ইসলামী শিক্ষা কেন্দ্রের অধ্যক্ষ হুজ্জাতুল ইসলাম সৈয়দ ইব্রাহীম খলীল রাজাভী।

মাওলানা মাওদুদুল হক গাদীর দিবসকে একটি গুরুত্বপূর্ণ দিন বলে অভিহিত করে বলেন যে, গাদীর দিবস সম্পর্কে অকাট্য দলিল থাকা সত্ত্বেও ইসলামের ইতিহাসের এই গুরুত্বপূর্ণ দিনটিকে আমরা উপেক্ষা করছি যা কোনভাবে কাম্য ছিল না।

মাওলানা আব্দুল মজিদ বিশেষ অতিথির ভাষণে বলেন, গাদীর দিবসের গুরুত্ব অপরিসীম। ধারাবাহিক সহীহ হাদীস ও ইতিহাস গ্রন্থে এ ঘটনাটির উল্লেখ থাকলেও এর অর্থ ও উদ্দেশ্যকে আমরা হালকাভাবে গ্রহণ করেছি যার ফলে নবী করিম (সা.) এর ইন্তেকালের পর যোগ্য নেতৃত্ব থেকে মুসলিম উম্মাহ বঞ্চিত হয়েছে। তিনি গাদীর দিবসকে মুল্যায়নের আহবান জানান।

অধ্যাপক ড. জাকির হোসেন বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ইতিহাসের আলোকে গাদীর দিবসের তাৎপর্য তুলে ধরে বলেন, আজ মুসলিম সমাজে গাদীর দিবস উপেক্ষিত একটি বিষয়। বিদায় হজ্ব, শেষে নবী করিম (সা.) গাদীরে হযরত আলী (রা.)কে নবী পরবর্তী মুসলিম উম্মাহর নেতা হিসেবে যে ঘোষণা দিয়েছিলেন সে ঘোষণা যদি অনুস্মৃত হত তাহলে মুসলমানদের মধ্যে দ্বন্দ্ব ও বিভক্তি হতো না।

সভাপতির ভাষণে ইসলামী শিক্ষা কেন্দ্রের অধ্যক্ষ হুজ্জাতুল ইসলাম সৈয়দ ইব্রাহীম খলীল রাজাভী গাদীর দিবসকে ইসলামের ইতিহাসের একটি সন্ধিকাল উল্লেখ করে বলেন, গাদীর ঐক্যের প্রতীক, ইসলামী নেতৃত্বের দিক নির্দেশক একটি ঘটনা। তিনি সত্যকে অনুধাবন করে বর্তমান পরিস্থিতির প্রেক্ষাপটে সমগ্র মুসলিম উম্মাহকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান জানান।

অনুষ্ঠানে হযরত আলী (আ.) এর শা’নে কাসীদা পাঠ করেন জনাব সৈয়দ হায়দার মেহদী শাম ও জনাব আতিয়ার রহমান।

অনুষ্ঠান সঞ্চালন করেন আঞ্জুমান-এ-পাঞ্জাতানীর সাধারণ সম্পাদক জনাব মোঃ ইকবাল।

বার্তা প্রেরক

মোঃ ইকবাল

সাধারণ সম্পাদক,

আহলে বাইত ফাউন্ডেশন

১২, আলতাপোল লেন

খুলনা।


আপনার মন্তব্য প্রেরণ করুন

আপনার ই-মেইল প্রকাশিত হবে না। প্রয়োজনীয় ফিল্ডসমূহ * এর মাধ্যমে চিহ্নিত করা হয়েছে

*

Mourining of Imam Hossein
پیام رهبر انقلاب به مسلمانان جهان به مناسبت حج 1440 / 2019
We are All Zakzaky
conference-abu-talib