‘আহলে বাইত বার্তা সংস্থা’

সূত্র : Parstoday
মঙ্গলবার

২৬ জুলাই ২০২২

৩:০৭:৫০ PM
1277174

পরমাণু সমঝোতা পুনর্বহাল না করা পর্যন্ত আইএইএ'র ক্যামেরা বন্ধ থাকবে: ইরান

ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের আণবিক শক্তি সংস্থার প্রধান মোহাম্মদ ইসলামি বলেছেন, যতক্ষণ পর্যন্ত ২০১৫ সালে সই হওয়া পরমাণু সমঝোতা পুনর্বহাল না হবে ততক্ষণ পর্যন্ত ইরানের পরমাণু স্থাপনায় বসানো আন্তর্জাতিক আণবিক শক্তি সংস্থা বা আইএইএ’র পর্যবেক্ষণ ক্যামেরা বন্ধ থাকবে।

আইএইএ’র মহাপরিচালক রাফায়েল গ্রোসির সাম্প্রতিক এক মন্তব্যের জবাবে গতকাল (সোমবার) মোহাম্মদ ইসলামি এই মন্তব্য করেন। তিনি সুস্পষ্ট করে বলেন, দীর্ঘ আলাপ আলোচনার চূড়ান্ত ফল ছিল ২০১৫ সালের পরমাণু সমঝোতা। এই সমঝোতার মধ্যদিয়ে ইরান তার পরমাণু কর্মসূচিতে নানা সীমাবদ্ধতার শর্ত মেনে নেয়। কিন্তু তারপরেও পশ্চিমারা ইরানের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেই যাচ্ছে। তারা পরমাণু সমঝোতা লঙ্ঘন করেছে। এরপরও ইরান তার প্রতিশ্রুতি মতো নানা সীমাবদ্ধতা মেনেই চলছিল যাতে পশ্চিমাদের আস্থা তৈরি হয়।। কিন্তু তারা তাদের প্রতিশ্রুতি রক্ষা করে নি।মোহাম্মদ ইসলামি বলেন, পরমাণু সমঝোতার আওতায় ইরানের স্থাপনাগুলোতে আইএইএ’র ক্যামেরা বসানো হয়েছিল যাতে পশ্চিমাদের অভিযোগ বন্ধ হয় কিন্তু তারপরও তারা ইরান-বিরোধী অভিযোগ করেই চলেছে এবং পরমাণু সমঝোতা মেনে চলছে না। এ অবস্থায় ইরানের পরমাণু স্থাপনায় এইসব ক্যামেরা সচল রাখার কোনো অর্থ হয় না। তিনি বলেন, ক্যামেরাগুলো খুলে ফেলা হয়েছে এবং সিল করা হয়েছে। যতক্ষণ পর্যন্ত পশ্চিমারা পরমাণু সমঝোতা না ফিরবে ততক্ষণ পর্যন্ত এই ক্যামেরা চালু করা হবে না।

পশ্চিমাদের কিছু অভিযোগের জবাবে মোহাম্মদ ইসলামি আবারো বলেছেন, ইরান কখনো গোপনে কোনো পরমাণু তৎপরতা চালায় নি এবং পরমাণু সমঝোতার বাইরে গিয়ে কখনো ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধ করে নি। তিনি জানান, ইরান যে হেভি ওয়াটার উৎপাদন এবং পরমাণু কর্মসূচির অন্যান্য অংশের উন্নয়ন ঘটিয়েছে তা পরমাণু সমঝোতার আলোকে এবং আইএইএ’র তত্ত্বাবধানেই হয়েছে। তিনি জানান, এখনো ইরানের পরমাণু কর্মসূচি আইএইএ'র তত্ত্বাবধানে চলছে।#


342/