‘আহলে বাইত বার্তা সংস্থা’

সূত্র : Parstoday
মঙ্গলবার

২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

৭:১০:৫৭ PM
1440816

গাজায় বন্দী বিনিময় ও যুদ্ধবিরতি চুক্তির সম্ভাবনা দেখছে কাতার; হামাসের প্রতিক্রিয়া আসেনি

গাজায় বন্দী বিনিময় ও যুদ্ধবিরতি চুক্তির সম্ভাবনা জোরালো হয়েছে বলে বিভিন্ন গণমাধ্যমে খবর বেরিয়েছে। আল-জাজিরা টিভি চ্যানেল জানিয়েছে, ৪০ জন ইসরাইলি বন্দীকে মুক্তি দেয়ার বিনিময়ে ৪০০ ফিলিস্তিনিকে মুক্তি দিতে চায় ইসরাইল। আর এই এই চুক্তির আওতায় ছয় সপ্তাহের যুদ্ধবিরতি হতে পারে।

ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে দখলদার ইসরাইল, যুক্তরাষ্ট্র, মিশর ও কাতারের প্রতিনিধিদের মধ্যে আলোচনার পর এই পরিকল্পনার কথা জানা গেছে। তবে ফিলিস্তিনের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসের পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত কোনো প্রতিক্রিয়া জানা যায়নি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সূত্রের বরাত দিয়ে আল জাজিরা জানিয়েছে, দখলদার ইসরাইল ঐ চুক্তির আওতায় ক্রমান্বয়ে বাস্তুচ্যুত গাজার বাসিন্দাদের উত্তর গাজায় ফিরতে দেয়ার বিষয়েও রাজি হয়েছে। তারা গাজার উপর দিয়ে যুদ্ধবিমান ওড়ানোও বন্ধ রাখতে রাজি আছে। দিনে আট ঘণ্টা বন্ধ থাকবে গোয়েন্দা নজরদারিও।

এদিকে, কাতারের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মাজেদ আল আনসারি বলেছেন, রমজান মাসের আগেই গাজায় যুদ্ধবিরতির বিষয়ে তারা আশাবাদী। মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনও আগামী সোমবারের মধ্যে যুদ্ধবিরতির সম্ভাবনা রয়েছে বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন।

তবে যেকোনো যুদ্ধবিরতির জন্য ফিলিস্তিনের প্রতিরোধ সংগঠনগুলোর সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত। তাদের বক্তব্য আসার পরই জানা যাবে আসলে যুদ্ধবিরতি বা বন্দী বিনিময় চুক্তি হচ্ছে কিনা।#

342/